অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারের দাবী বান্দরবান আওয়ামী লীগ সভাপতি’র

দীর্ঘদিন ধরে বান্দরবানে শসস্ত্র সন্ত্রাসীদের তৎপরতা বেড়ে যাওয়া,জন প্রতিনিধিদের হত্য,হত্যার হুমকি ও ব্যাপক চাঁদাবাজি চলে আসায় জেলায় অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার ও সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের দাবীতে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ রবিবার (৫ জানুয়ারি) সকালে বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ ও জেলা আওয়ামীলীগ এর আয়োজনে পার্বত্য জেলা পরিষদের হলরুমে এই সংবাদ সম্মেলনে অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় সংবাদ সম্মেলনে বান্দরবান জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্যশৈহ্লা অভিযোগ করে বলেন,বান্দরবানের বিভিন্ন এলাকায় অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের অপতৎপরতা বেড়ে গেছে। সন্ত্রাসীদের ভয়ে এলাকার মানুষ এখন চরম আতংকে রয়েছে।

এসময় তিনি আরো বলেন,সরকারি উন্নয়ন কাজ ও সাধারণ মানুষের জীবনযাত্রায় প্রভাব বিস্তার করছে এই অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা।

এসময় তিনি আরো বলেন,নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরা সন্ত্রাসীদের ভয়ে এখন এলাকায় যেতে পারছে না। শিক্ষার্থীরা পর্যন্ত স্কুল কলেজে যেতে ভয় পাচ্ছে। পাহাড়ের মানুষ সন্ত্রাসীদের কাছে জিম্মী হয়ে পড়েছে, নতুন বছরে ও সন্ত্রাসীদের এই কর্মকান্ড এলাকার জনসাধারণকে নতুনভাবে আতংকিত করছে।

এসময় তিনি আরো বলেন, বান্দরবানের রুমা, রোয়াংছড়ি, রাজবিলা, কুহালং সহ বিভিন্ন দুর্গম এলাকায় পাহাড়ে আঞ্চলিক সংগঠন জেএসএস, জেএসএস সংস্থারপন্থি, মগ বাহিনীসহ দলছুট অজ্ঞাত কয়েকটি সন্ত্রাসী বাহিনী এলাকার নিরীহ মানুষ থেকে চাঁদা আদায় করছে এবং নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদেরকে ফোন করে নানা রকম হুমকি প্রদান করে যাচ্ছে।

সংবাদ সম্মেলনে বান্দরবান জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বান্দরবানের সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে জোরালো অভিযান পরিচালনা করা ও পাহাড়ে লুকিয়ে রাখা অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারের জন্য সরকারের কাছে জোর দাবি জানান।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন,বান্দরবান সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান রাজু মং মারমা, পৌরসভার কাউন্সিলর অজিত কান্তি দাশ, সদর ইউপি চেয়ারম্যান সাবু খয় মার্মা, রাজবিলা ইউপি চেয়ারম্যান ক্য অং প্রু মারমা, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি পাইহ্লা অং মার্মাসহ বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সংবাদকর্মীরা।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।