অর্থের লোভ : ইয়াবা পাচারে নামলেন নাইক্ষ্যংছড়ির এক প্রবাসীর স্ত্রী

ফাতেমা বেগম
বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম ইউনিয়নের এক প্রবাসীর স্ত্রী রোহিঙ্গা মাদক ব্যবসায়ীদের ফাঁদে পড়ে ইয়াবা পাচারে জড়িয়ে র‌্যাবের জালে ধরা পড়লেন। তার নাম ফাতেমা বেগম।
গত শুক্রবার (৪ জানুয়ারি) র‌্যাবের হাতে ইয়াবাসহ আটক হওয়ার পর এ তথ্য পেয়েছে র‌্যাব-৭। এ সময় মো. সুলতান নামে আরও একজনকে আটক করা হয়। আটককৃত ফাতেমা বেগম (৪০) নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুমের সৌদি প্রবাসীর নুরুল আমিনের স্ত্রী ও অপরজন মো.সুলতান ওই ইউনিয়নের নোয়াপাড়া এলাকার জাফর আলমের ছেলে।
র‌্যাব সূত্রে জানা যায়, গত শুক্রবার ইয়াবা বেচা-কেনার জন্য বালুখালীর পানবাজার এলাকায় আসবে ইয়াবা পাচারকারীরা এমন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালনা করে র‌্যাব-৭। এ সময় ১১ হাজার ৯০০ ইয়াবাসহ এ দুইজনকে আটক করে তারা।
আটক প্রবাসীর স্ত্রী ফাতেমা বেগমের ছোট ভাই শাহাব উদ্দিন বলেন, একটি চক্রের ফাঁদে পড়েছে ফাতেমা,মাত্র ৫ হাজার টাকার জন্য ইয়াবা পাচার করছিল সে। তার সংসারে ৫ সন্তান রয়েছে। এখন তাদের নিয়ে চিন্তায় আছি।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে র‌্যাব-৭ কক্সবাজার ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার মেজর মেহেদী হাসান বলেন,জিজ্ঞাসাবাদে ইয়াবা পাচারের কথা স্বীকার করেছে ফাতেমা। মামলা দায়ে করে তাকে উখিয়া থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।
উখিয়ার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) নুরুল ইসলাম মজুমদার বলেন,র‌্যাবের হাতে ইয়াবাসহ দুইজন বিরুদ্ধে মাদক আইনে মামলা হয়েছে। তাদের জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।