অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে কাপ্তাইয়ে আওয়ামী লীগের ২ নেতা বহিস্কার

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ রাঙামাটি জেলার কাপ্তাই উপজেলার ২নং রাইখালী ইউনিয়ন শাখার সভাপতি মংক্য মারমা এবং সাবেক যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক বিপ্লব মারমাকে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে আওয়ামী লীগের দলীয় পদ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

গত রবিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অংসুইছাইন চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহিম খলিল এর স্বাক্ষরিত এই বহিষ্কারাদেশ নোটিশে মংক্য মারমাকে রাইখালী ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি এবং বিপ্লব মারমাকে আ’লীগ এর প্রাথমিক সদস্য পদ হতে বহিস্কার করা হয়।

গত ২৯ নভেম্বর বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ রাইখালী ইউনিয়ন শাখার তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক থোয়াইপ্রু মারমা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সম্পাদকের বরাবরে মংক্য মারমার বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ দাখিল করেন।

অভিযোগে তিনি জানান,পুলিশ কনস্টেবল চাকরি পাইয়ে দিবেন বলে তারা নগদ সাড়ে সাত লাখ টাকা অর্থ গ্রহণ করেন। উক্ত বিষয়ে সমাধানের জন্য গত ১১ ডিসেম্বর সকালে কাপ্তাই উপজেলা তৃতীয় শ্রেণী ক্লাবে উপজেলা আ’লীগের নেতৃবৃন্দ ও উভয় পক্ষের স্বাক্ষী সহ উপস্থিতিতে মংক্য মারমা অর্থ আত্মসাতের অপরাধ বিষয়ে স্বীকার করেন এবং সেদিন সবার সামনে অঙ্গীকার করেন দুই মাসের মধ্যে বাদীর সম্পূর্ণ পাওনা টাকা ফেরত প্রদান করিবেন।

সেই সময় আরো অঙ্গীকার করেন, যে উক্ত সময়ের মধ্যে বাদীর টাকা ফেরত দিতে ব্যর্থ হলে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কাপ্তাই উপজেলা শাখা যে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করিবে তা মেনে নিবেন। সেক্ষেত্রে তিনি টাকা ফেরত দিতে ব্যর্থ হলে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ এর গঠনতন্ত্র মোতাবেক দলের পদবী হতে তাকে এবং বিপ্লব মারমাকে উপজেলা আওয়ামী লীগ বহিষ্কার করেন।

এই বিষয়ে মংক্য মারমার নিকট জানতে চাইলে তিনি জানান,বহিস্কার এর সিদ্বান্ত তিনি জেনেছেন, তবে এটা তাঁর বিরুদ্ধে রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র বলে তিনি দাবি করে তিনি জানান, অভিযোগকারীর কাছ থেকে টাকা নিয়েছি এই রকম কোন কাগজপত্র প্রমান নাই।

এদিকে আ’লীগ নেতা বিপ্লব মারমাও তাঁর বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে দাবি করেন। তিনি জানান, কারো কাছ থেকে টাকা গ্রহন করেন নাই, সামনে জেলা পরিষদে রদবদল হবে, সেখানে তিনি সদস্য পদে নির্বাচনর দৌঁড়ে এগিয়ে আছে, তাই কিছু মহল তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছেন।

বিপ্লব মারমা জানান, ইতিমধ্যে মংক্য মারমাকে উকিল নোটিশ পাঠানো হয়েছে, পরবর্তীতে তাঁর বিরুদ্ধে মানহানি মামলা করবো। তিনি জানান, উপজেলা আ’লীগের কমিটি অনুমোদন না হওয়া পর্যন্ত তাদের বহিস্কার এর এখতিয়ার নাই বলে দাবি করেন।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।