আইন শৃঙ্খলা বাহিনীকে তথ্য দিন : মন্ত্রী বীর বাহাদুর

পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর বলেছেন, এলাকার শান্তি, সম্প্রীতি ও বন্ধুত্ব বজায় রাখার জন্য সন্ত্রাসীদের বিষয়ে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীকে সঠিক তথ্য দেয়া প্রয়োজন। পাহাড়ে সন্ত্রাসীদের চাঁদাবাজির কারণে এলাকার উন্নয়ন ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে ।

শুক্রবার দুপুরে বান্দরবানের রোয়াংছড়ি উপজেলা পরিষদ মিলানায়তনে ইউকেএইড ও স্টার্ট ফান্ড বাংলাদেশের অর্থায়নে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে মানবিক সহায়তা প্রদান অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন ।

মন্ত্রী আরো বলেন, সন্ত্রাসীদের কোন জাত ও ধর্ম নেই। এলাকার উন্নয়ন চাইলে সন্ত্রাসীদের আনাগোনার তথ্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে দিতে হবে। তখনই এলাকায় শান্তি ফিরে আসবে, উন্নয়ন কাজ এগিয়ে যাবে । রোয়াংছড়ি উপজেলায় শত কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ চলছে, আরো চলবে বলে জানান মন্ত্রী । এছাড়াও রোয়াংছড়ি উপজেলাকে দ্বিতীয় শহর হিসেবে গড়ে তোলা হবে বলে জানান মন্ত্রী এবং প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেন তিনি ।

এছাড়াও রোয়াংছড়ি সদর থেকে রণিন পাড়া পর্যন্ত সড়ক তৈরি করা হবে । আর সড়কের সুবাধে দুর্গম গ্রামগুলোতে শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও ব্যবসা বাণিজ্যে বড় ধরনের পরিবর্তন আসবে বলে জানান মন্ত্রী বীর বাহাদুর ।

রোয়াংছড়ি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান চহাই মং মারমার সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক শফিউল আলম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কামরুজামান, পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য কাজল কান্তি দাশ, জেলা পরিষদের সদস্য মোজাম্মেল হক বাহাদুর, কাঞ্চন জয় তঞ্চঙ্গ্যা, এলজিইডি’র নির্বাহী প্রকৌশলী জিল্লুর রহমান, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী ইয়াছির আরাফাত, পিডি আব্দুল আজিজ প্রমুখ ।

মন্ত্রী বীর বাহাদুর বলেন, বন উজাড়, নদী থেকে পাথর উত্তোলন, পাহাড় ন্যাড়া করা, নির্বিচারে গাছপালা কাটা, ছড়া ভরাট করা সহ বিভিন্ন কারণে প্রকৃতি আমাদের উপর বিরুপ মনোভাব পোষণ করছে । আমাদের অসাবধনতার কারণে এই পাহাড়ি এলাকায়ও বন্যা দেখা দিচ্ছে।

পরে মন্ত্রী ৫০ পরিবারের মাঝে অতি বৃষ্টি, পাহাড় ধস ও বন্যায় দুর্গতদের মাঝে শর্তহীন নগদ অর্থ বিতরণ করেন । ইউকেএইড ও স্টার্ট ফান্ড বাংলাদেশ এর আর্থিক সহায়তায় কারিতাস বাংলাদেশ, চট্টগ্রাম অঞ্চল এবং স্থানীয় সংস্থা তৈমু বান্দরবান জেলার ৩টি ্উপজেলায় (রুমা, রোয়াংছড়ি এবং থানচি) এই অর্থ বিতরণ করছে ।

কারিতাস বান্দরবান কার্যালয় সুত্রে জানা যায়, প্রতি উপজেলায় অধিক ক্ষতিগ্রস্ত ৩টি ইউনিয়নের ৭০০ পরিবার করে ৩ উপজেলায় মোট ২ হাজার ১০০ পরিবার এ সহায়তা লাভ করে । এর মধ্যে ১,৭৮৫ পরিবার ৫,৫০০টাকা এবং বিশেষভাবে বিবেচিত পরিবার (প্রতিবন্ধী, প্রবীণ, বিধবা, দুগ্ধদানকারী) হিসেবে ৩১৫টি পরিবারকে ৬, ৫০০ টাকা করে সহায়তা দেয়া হয় ।

এর আগে মন্ত্রী স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) বান্দরবান এর বাস্তবায়নে প্রায় ২ কোটি টাকা ব্যয়ে রোয়াংছড়ি থেকে বাঘমার জিসি ভায়া লিরাগাঁও এর ৫ কি.মি রাস্তা পূর্নবাসন এবং ৫৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে রোয়াংছড়ি উপজেলা সদরে মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি জাদুঘর নির্মাণ প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। এছাড়াও রোয়াংছড়ি উপজেলা গ্রন্থাগার, অফিসার্স ক্লাব এবং টাউনহলের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।

এছাড়াও রোয়াংছড়ি সদর ইউনিয়ন পরিষদে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের বিশেষ বরাদ্দের বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ৩৩৩ পরিবারকে ১৫ কেজি করে চাল বিতরণ করেন পার্বত্য মন্ত্রী ।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।