আওয়ামীলীগের কাউন্সিল অধিবেশনে পাশাপাশি কুজেন্দ্র-জাহেদ

কাউন্সিল অধিবেশনে পাশাপাশি খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি ও সাধারন সম্পাদক জাহেদুল আলম।
কাউন্সিল অধিবেশনে পাশাপাশি খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি ও সাধারন সম্পাদক জাহেদুল আলম।
দ্বিধাবিভক্ত খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগের অভ্যন্তরীন রাজনৈতিক বিরোধ ও পরস্পর বিরোধী অবস্থানের পরেও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের ২০তম জাতীয় কাউন্সিলের প্রথম অধিবেশনে পাশাপাশি বসেছিলেন খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি ও সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব মো.জাহেদুল আলম।

দলের জাতীয় কাউন্সলে এ দু’নেতা পাশাপাশি বসলেও তাদের মধ্যে কোন কথা হয়েছে কিনা জানা যায়নি। তবে তাদের দুজনের পাশাপাশি বসাকে ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন খাগড়াছড়ি আওয়ামীলীগের তৃনমুলের নেতাকর্মীরা। গত কয়েকদিন ধরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে আলহাজ্ব মো. জাহেদুল আলম আওয়ামীলীগের জাতীয় কাউন্সিলে সাধারন সম্পাদক হিসেবে যোগ দিতে পারবেন কিনা পক্ষে-বিপক্ষে নানা প্রচারনার পরে তার যোগদানে উজ্জীবিত জাহেদুল আলম বলয়ের নেতাকর্মীরা। বিগত পৌরসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দুই ভাগে বিভক্ত খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা। সে থেকেই আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা কুজেন্দ্র-জাহেদ বলয়ে বিভক্ত হয়ে রাজনৈতিক কর্মসুচী পালন করে।

খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. জাহেদুল আলমকে দল থেকে বহিস্কার করা হয়েছে প্রতিপক্ষ গ্রুপের এমন বক্তব্যকে অপপ্রচার দাবী করে জেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক জহির উদ্দিন ফিরোজ তার ফেইসবুক স্টাটাসে লিখেছেন, জাতীয় কাউন্সিলে জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে তা মিথ্যা প্রমানিত হয়েছে। তিনি আরো বলেন,হাইব্রিড নেতারা লুটপাট করতে বর্ষীয়ান এই নেতাকে সরাতে এবং সংগঠনকে ধ্বংস করতে যে ষড়যন্ত্র করেছে তাদের সে চক্রান্ত থেমে গেছে।

অন্যদিকে জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি’র সমর্থক হিসেবে পরিচিত খাগড়াছড়ি সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি মো. নুরুল আযম তার ফেইসবুক স্টাটাসে লিখেছেন, দলের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী মো. জাহেদুল আলম জাতীয় কাউন্সিলের পরে সাধারন সম্পাদক পদে থাকবেননা। তাকে আবারো সাধারন সদস্য পদ গ্রহনের মাধ্যমে শুরু করতে হবে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।