আওয়ামীলীগ বলছে নির্বাচনী অফিস ভাংচুর, বিএনপি বলছে সাজানো

বান্দরবানের লামা উপজেলার কাছাকাছি বমু বিলছড়ি ইউনিয়নে নৌকা মার্কার নির্বাচনী অফিসে দুর্বৃত্তরা হামলা, ভাংচুর, বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার ছবির অবমাননা এবং পোস্টার ছিঁড়ে ফেলার ঘটনায় থানায় মামলা করেছে আওয়ামী লীগ। মঙ্গলবার দিবাগত রাত সাড়ে ১০টায় ইউনিয়নের বমুরমুখ বাজারে স্থাপিত অস্থায়ী নির্বাচন পরিচালনা কার্যালয়ে এই ঘটনা ঘটে। তবে ঘটনাটি পরিকল্পিত ও সাজানো বলে দাবী করেছেন বমু বিলছড়ি ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি ও চেয়ারম্যান আব্দুল মতলব। এদিকে নির্বাচনী কার্যালয় ভাংচুরের ঘটনা শুনে বুধবার দুপুরে চকরিয়া বিএনপির সহ-সভাপতি ফজলুল করিম সাঈদীসহ নেতাকর্মীরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
বমু বিলছড়ি ইউনিয়নে নির্বাচনী প্রচারণা কমিটির সভাপতি মো. কপিল উদ্দিন বলেন, মঙ্গলবার সকালে কক্সবাজারের চকরিয়া-পেকুয়া আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী মো. জাফর আলম বমু বিলছড়ি ইউনিয়ন পরিষদ মাঠে নির্বাচনী জনসভা করেন। এসময় তিনি আরো কয়েকটি ওয়ার্ডে পথসভা ও গণসংযোগ করলে সেখানে নৌকা মার্কার সমর্থনে সাধারণ মানুষের ঢল নামে। এ গণজোয়ার দেখে ইর্ষাণি¦ত হয়ে বিএনপির নেতাকর্মীরা গভীর রাতে মিছিল করে এবং রাত সাড়ে ১০টায় বমুরমুখস্থ নৌকার ইউনিয়ন নির্বাচনী অফিস ভাংচুর করেন। এ ঘটনার প্রতিবাদে আমরা আইনীভাবে মোকাবেলা করব।
ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক রতন বড়–য়া বলেন, আওয়ামী লীগের প্রচারণা শেষে রাতে প্রত্যেকটি ওয়ার্ড থেকে ছোট ছোট মিছিল এসে বমুরকুল বাজারে জড়ো হয়। তারপর তারা একসাথে নৌকা মার্কার কার্যালয়ে ভাংচুর চালায়।
আওয়ামী লীগের নেতাদের বক্তব্যের বিরোধীতা করে ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি ও চেয়ারম্যান আব্দুল মতলব বলেন, মঙ্গলবার দিবাগত রাত ৮টায় ওয়ার্ড বিএনপির নেতাকর্মীরা শান্তিপূর্ণভাবে ছোট একটি মিছিল করেছে। বিএনপি যেখানে ভয়ে মাঠে নামতে পারছেনা সেখানে আওয়ামী লীগের কার্যালয় ভাংচুর করা অসম্ভব। তিনি আরো বলেন, একাদশ সংসদ নির্বাচনের আগে মিথ্যা মামলা দিয়ে বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের নির্বাচন থেকে দূরে সরিয়ে রাখতে এই ঘটনা সাজানো হয়েছে।
এ বিষয়ে চকরিয়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী সাংবাদিকদের বলেন, নির্বাচনী কার্যালয় ভাংচুরের ঘটনায় বমু বিলছড়ি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মনছুর উদ্দিন বাদী হয়ে মামলা করেছেন। দ্রæত আসামীদের গ্রেফতারে মাঠে নামবে পুলিশ।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।