আমরা পথ চেয়ে রয়েছি কিন্তু কেউ ত্রাণ দিতে আসেনি

আমরা দিনে এনে দিন খায়, দিন মজুরী করে কোন রকমে বেঁচে আছি। উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ঘরে ঘরে খাদ্য সামগ্রী পৌছানোর কথা কানে শুনেছি কিন্তু বাস্তবে আমরা পাইনি। আমাদের পাড়ায় কবে নাগাদ সরকারি ত্রাণ সামগ্রী দিবে কেউ জানেনা। আমরা পথ চেয়ে রয়েছি গত এক সপ্তাহ ধরে, কিন্তু কেউ ত্রাণ দিতে আসেনি। অনেকটা আকুতির সুরে এমন কথা বান্দরবানে থানচি উপজেলা সদরের ৪ নং ওয়ার্ডে নাইন্দারী পাড়া ৪৮ পরিবারের।

গত ৬ দিন ধরে করোনা ভাইরাসের সচেতনতা জন্য সরকারের লক ডাউন ঘোষনার কারনে কর্মহীন হয়ে পড়েছে পাড়ায় অধিকাংশ পরিবার। একই কথা জানালেন থানচির আমতলী পাড়ার ৩০ পরিবার ও বলিপাড়া ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ডের পুরাতন নাইন্দারী পাড়া ৩৬ পরিবারের লোকজন। প্রায় শত বছরের পেরিয়ে স্থাপিত হয়েছিল থানচি সদর ইউনিয়নের নাইন্দারী পাড়া। পাড়ায় অধিকাংশ মানুষ এখনও হত দরিদ্র দিন মজুর, ছোট ছোট ঘরেই তাদের বসবাস দীর্ঘদিন ধরে।

নাইন্দারী পাড়া বাসিন্দা সাবেক ইউপি সদস্য প্রবীণ এই চথোয়াইউ মারমা (৬৫) বলেন, আমাদের নাইন্দারী পাড়া ৫০/৫২ পরিবারের মাঝে বিধবা রয়েছে ১০ পরিবার এবং হত দরিদ্র ২০ পরিবার স্বাবলম্বী ১০ পরিবার, কিন্তু সবাই গরীব ও দিন মজুর। গত এক সপ্তাহব্যাপী করোনা ভাইরাসের কারনে ঘরে লক ডাউনের রয়েছে সবাই কিন্তু এখনও পর্যন্ত কোন প্রকার সরকারী বেসরকারী ভাবে ত্রাণ সামগ্রী পৌছায়নি কেউ।

পুরাতন নাইন্দারী পাড়া বাসিন্দা বাথোয়াইচিং মারমা (৫৫) ও থোয়াইনু মারমা (৫৬) বলেন, আমাদের পাড়ায় ৩৬ পরিবারে মাঝে ২০ পরিবার মানবেতর জীবনযাপন করছে, এখন ও ত্রাণ সামগ্রী কেউ দেয়নি।

আমতলী পাড়া নিবাসী দিন মজুর উচিংমং মারমা বলেন, আমাদের পাড়া বাঙ্গালীসহ ৩০ পরিবার রয়েছে, ৩/৪ পরিবার স্বাবলম্বী হলেও বাকিরা সবাই দিন মজুরী করে সংসার চালাই, বর্তমানে কর্মহীন হয়ে পড়েছে সবাই।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়,বান্দরবান জেলা প্রশাসক কার্যালয় হতে গত বৃহস্পতিবার ২৬ মার্চ ৫ মেট্রিক টন চাউল ও নগদ ৩৫ হাজার টাকা বরাদ্ধ পেয়েছেন উপজেলা প্রশাসন এবং ২৯ মার্চ পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর ফাউন্ডেশন হতে নগদ ৫০ হাজার টাকাসহ অন্যান্য সামগ্রী বরাদ্ধ পেয়েছে।

এই ব্যাপারে থানচি উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ আরিফুল হক মৃদুল বলেন, প্রশাসনে হাতে যে বরাদ্ধ ছিল তা সম্পূর্ণ শেষ, ফের ৩.০০ মেট্রিক টন চাউল বরাদ্ধ পেয়েছি সেটি প্যাকেট করা হচ্ছে ক্রমন্বয়ে বিতরণ করা হবে।

আরও পড়ুন
Loading...