আলীকদমে ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী জিহাদ ভোট পূন:গণনার আবেদন করলেন

বান্দরবানের আলীকদম উপজেলায় সদ্য অনুষ্ঠিত ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে ১নং আলীকদম সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী আনোয়ার জিহাদ ভোট কারচুপির অভিযোগ এ তা পুন:গণনার আবেদন জানিয়েছেন। বান্দরবান জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা বরাবর গত বুধবার (১ ডিসেম্বর) লিখিত আবেদন করেন চেয়ারম্যান প্রার্থী আনোয়ার জিহাদ।

লিখিত আবেদনে আনোয়ার জিহাদ উল্লেখ করেন, গত ২৮ নভেম্বর আলীকদম উপজেলার চারটি ইউনিয়ন পরিষদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ওই নির্বাচনে তিনি ১নং আলীকদম সদর ইউনিয়ন পরিষদে সাইকেল প্রতীক নিয়ে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনে অংশ নেন। তিনি আওয়ামী লীগের আলীকদম উপজেলা যুবলীগ সভাপতি ও ছাত্রলীগ উপজেলা সভাপতি ছিলেন। আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন চেয়ে না পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনে অংশ নেন।

এতে আরও উল্লেখ করা হয়, ভোটের দিন বেশিভাগ কেন্দ্র থেকে তাঁর নির্বাচনী এজেন্টদের জোরপূর্বক বের করে দেয় আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থীর লোকজন। প্রায় প্রতিটি কেন্দ্রে তাঁর (আনোয়ার) প্রাপ্ত ভোট সরিয়ে প্রতিদন্ধী নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর ভোট গণনা করে ফলাফল পাল্টে দেয়া হয়।

লিখিত অভিযোগে আনোয়ার জিহাদ উল্লেখ করেন ভোট গণনা ও ফলাফল ঘোষনার আগ মুহূর্তে হঠাৎ বিদ্যুৎ চলে যাওয়ায় কারচুপি করা হয়। এছাড়া কেন্দ্রে কেন্দ্রে নৌকা প্রতীকের পক্ষে দলীয় নেতা কর্মীরা নির্বাচন কাজে নিয়োজিত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রভাবিত করে নৌকার প্রার্থীকে জিতিয়ে দেওয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করে।

তিনি উল্লেখ করেন, ইউনিয়নের ৮ ও ৯নং ওয়ার্ড দুটি পাহাড়ি দুর্গম এলাকা হওয়ায় সেখানে মোবাইল ফোনের নেটওয়ার্ক নেই। ৯নং ওয়ার্ডে মোট ভোটার ২৪৭টি হলেও ভোট গ্রহণ দেখানো হয়েছি ২৪৫টি, যা শতকরা হিসেবে ৯৯ দশমিক ১৯ এবং ৮নং ওয়ার্ডে ৪৫৫ ভোটের মধ্যে গ্রহণ দেখানো হয় ৪০০ ভোট। এ কেন্দ্রে কোনো নষ্ট বা অবৈধ ভোট দেখানো হয়নি। উক্ত ভোট কেন্দ্রে নিয়োজিত সহকারী প্রিসাইডিং ও পোলিং কর্মকর্তা নৌকা প্রার্থীর ঘনিষ্ঠজন। ভোট গণনার পর ফলাফল তাঁর (আনোয়ার জিহাদ) এজেন্টকে সরবরাহ করা হয়নি। এসব কারণ উল্লেখ করে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আনোয়ার জিহাদ গত ২৮ নভেম্বর অনুষ্ঠিত ১নং আলীকদম সদর ইউনিয়ন পরিষদের ভোট পুনঃগণনার দাবি করেন।

এ ব্যাপারে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা বলেন, যে কোনো প্রার্থীই অভিযোগ করার সুযোগ রয়েছে। অভিযোগের বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

উল্লেখ্য, ওই নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন নৌকা প্রতীকে ৩৩২১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদন্ধী ছিলেন আনোয়ার জিহাদ। তিনি সাইকেল প্রতীকে পেয়েছেন ৩০২২ ভোট। মাত্র ২৯৯ ভোটের ব্যবধানে তিনি পরাজিত হয়েছেন।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।