আলীকদমে গাছ চোরদের হামলায় ৫ বনকর্মী আহত

বান্দরবানের আলীকদম উপজেলার সংরক্ষিত বনাঞ্চল থেকে রাতের আঁধারে চুরি করে গাছ নিয়ে যাওয়ার সময় বাধা প্রদান করায় গাছ চোরদের হামলায় এক বিট কর্মকর্তাসহ ৫ বনকর্মী আহত হয়েছেন। আহতরা হলেন,মাতামুহুরী রেঞ্জের আলীকদম বিট কর্মকর্তা সানা উল্লাহ, বনপ্রহরী মো. জলিলুর রহমান, মো. মামুন, শফিকুর রহমান ও ফ্রিম্যান মো. রফিক।

অভিযোগে জানা যায়, গত শুক্রবার (১০জানুয়ারী) দিবাগত রাত ১টার দিকে সংরক্ষিত মাতামুহুরী বনাঞ্চলের পানিস্যাঘোনা এলাকা থেকে স্থানীয় কিছু লোকজন গাছ চুরি করে নিয়ে যাচ্ছে; এমন সংবাদের ভিত্তিতে বিট কর্মকর্তা সানা উল্লাহর নেতৃত্বে সঙ্গীয় সদস্যরা ঘটনাস্থলে অভিযান চালায়। এ সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিতির টের পেয়ে কিছু বুঝে ওঠার আগেই মনছুর মিয়ার নেতৃত্বে গাছ চোরেরা বন কর্মীদের ওপর হামলা শুরু করে। এতে বিট কর্মকর্তাসহ ৫ জন আহত হন। পরে আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন স্থানীয়রা। আহতদের মধ্যে বন প্রহরী জলিলুর রহমানের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে কক্সবাজার সদর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠিয়ে দেন।

এদিকে পরে গত রবিবার দিনগত রাতে বিট কর্মকর্তা সানা উল্লাহ বাদী হয়ে এই ব্যাপারে আলীকদম থানায় মামলা করেন। মামলায় অভিযুক্তরা হলো- নয়াপাড়া ইউনিয়নের বাগান পাড়ার বাসিন্দা মৃত নুর মোহাম্মদের ছেলে মো. মনছুর মিয়া ( ৩০), তার স্ত্রী লায়লা বেগম (২৭), মৃত লেয়াকত আলীর ছেলে টিপু প্রকাশ মারুফ (২৮), তার স্ত্রী জোবেদা বেগম (২৪), নুর মোহাম্মদের ছেলে জাফর আলম (২৭), তার স্ত্রী নুর আয়েশা বেগম (৩০), আবদুর জব্বারের ছেলে ওসমান (২০), আলী হোসেনের ছেলে মো. জমির (২৫), সামশুল আলমের ছেলে আবদুর রহিম (২৬), তার স্ত্রী ইয়াসমিন (২৫), ভাই আসাব উদ্দিন (৩০), আশ্রাফ আলীর ছেলে আবু ছালাম মনু (২৪)।

মাতামুহুরী রেঞ্জ কর্মকর্তা জহির উদ্দিন মোহাম্মদ মিনার চৌধুরী বলেন, এর আগেও চক্রটি সংরক্ষিত বন থেকে গাছ চুরি করে নেওয়ার চেষ্টা করলে আমরা থানায় মামলা দায়ের করি। বার বার তারাই বনের গাছ চুরি কাজে লিপ্ত হচ্ছে।

এই ব্যাপারে মামলায় অভিযুক্তদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে জানান,আলীকদম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কাজী রকিব উদ্দিন।

আরও পড়ুন
Loading...