আলীকদমে নিয়ম অমান্য করে বর্ষাকালে রিংওয়েল স্থাপন

বান্দরবানের আলীকদম উপজেলায় বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচী (এডিবি) প্রকল্পের অধীনে ৪ টি রিংওয়েল স্থাপনে ব্যাপক হারে অনিয়ম ও কার্যদেশ না মেনে কাজ করার অভিযোগ উঠেছে।

এলজিইডি আলীকদম উপজেলা অফিস সূত্রে জানা যায়, আলীকদম বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচী (এডিপি) প্রকল্পের মাধ্যমে ৬ লক্ষ টাকায় ৪ টি রিংওয়েল স্থাপনের বরাদ্দ দেওয়া হয়। বরাদ্দকৃত ৪টি রিংওয়েল স্থাপন এপ্রিলে শুরু হওয়ার নির্দেশনা থাকলেও করা হয়েছে জুনের দ্বিতীয় সপ্তাহে ভরা বর্ষা মৌসুমে।

সরজমিনে দেখা যায়, উপজেলার কোনা পাড়া, হোসেন সর্দ্দার পাড়া, আবু সর্দার পাড়া ৩ টি রিংওয়েল স্থাপন করা স্থাপন করা হয়েছে, কিন্তু বর্ষাকাল হওয়ায় নয়াপাড়া ইউনূসের বাড়ীতে রিংওয়েল স্থাপন করতে দেওয়া হয়নি এবং ৫০ ফুট গভীর রিংওয়েল স্থাপন করা কথা থাকলেও তা মানা হচ্ছে না।

স্থানীয়রা জানান, শুকনো মৌসুমে আলীকদম উপজেলায় পানির জন্য যে দূর্ভোগ পোহাতে হয় তারমধ্য বর্ষা মৌসুমে রিংওয়েল স্থাপন করা কতটা যুক্তিক। সঠিক তদারকি না থাকায় যেন তেন ভাবে কাজ করে যাচ্ছে ঠিকাদারের লোকজন।

লটারির মাধ্যমে কাজটি পান বান্দরবানের মেসার্স নাজির আহম্মেদ।কাজটি কিনে সাব ঠিকাদার হিসেবে কাজ করছেন লামার সুমন মাহামুদ ও সাইফুল ইসলাম সোহেল।

এবিষয়ে সাব ঠিকাদার সুমন মাহামুদ বলেন, যথাযথ ভাবে কাজ হচ্ছে। কাজগুলো এলজিইডি কর্মকর্তারা দেখাশুনা করছেন। কিছু বলার থাকলে বা জানার থাকলে এলজিইডিতে যোগাযোগ করতে বলেন।

এবিষয়ে আলীকদম উপজেলা প্রকৌশলী (এলজিইডি) কর্মকর্তা আসিফ আহম্মেদ জানান, সিডিউল অনুযায়ী কাজ বুঝে নেওয়া হবে। কাজে কোন অনিয়ম মেনে নেওয়া হবে না, বরাদ্দে যা যা ধরা আছে।সে অনুযায়ী কাজ না করলে বিল দেওয়া হবে না বলে জানান।

আরও পড়ুন
Loading...