আলীকদমে পাথর খেকোদের ৩টি ট্রাক জব্দ

আলীকদমের পাট্টাখাইয়া সড়কের পাশে অবৈধ পাথর স্তুপ করছে শ্রমিকরা
বান্দরবানের আলীকদম উপজেলায় সরকারি নিয়মনীতিকে উপেক্ষা করে চলছে পাথর পাচার। উপজেলা সদরের ৮-১০ কিলোমিটারের মধ্যেই অবৈধভাবে পাথর আহরণ ও প্রকাশ্য দিবালোকে পরিবহন চললেও যেন দেখার কেউ নেই।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গতমাসে জেলা-উপজেলা মাসিক আইন-শৃঙ্খলা সভায় পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপি পাথরদস্যুর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেন। সোমবার স্থানীয়রা উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে তথ্য দেওয়ার পর পুলিশ চৈক্ষ্যং ইউনিয়নের পাট্টাখাইয়া এলাকা থেকে ১টি পাথর বোঝাইসহ তিনটি ট্রাক আটক করেছে। জব্দের পর ট্রাকগুলি ছাড়িয়ে নিতে পাথরদস্যু সিন্ডিকেট তদবির চালিয়ে যাচ্ছিলেন। এক পর্যায়ে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে জরিমানা দেখিয়ে পাথর আহরণে ব্যবহৃত ট্রাকগুলি ছাড়িয়ে নেয়া হয় বলে জানা গেছে।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে আলীকদম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. রফিকুল্লাহ সাংবাদিকদের বলেন, ঘটনাস্থল থেকে ১টি পাথর বোঝাই ও ২টি খালি ট্রাক আটক করে জব্দ তালিকা করা হয়েছে। আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
এদিকে স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেন, চৈক্ষ্যং ইউনিয়নের ভরিখাল ও কলারঝিরির শাখা-প্রশাখা থেকে সরকারি অনুমতি ছাড়া নির্বিচারে পাথর আহরণ করছে একটি সিন্ডিকেট। কমপক্ষে ৫০ হাজার ঘনফুট পাথর ভরিরমুখ সড়কের পাট্টাখাইয়া এলাকা ও ভরিরমুখ আবুল কাসেম পাড়া ও মমপাখই হেডম্যান পাড়া এলাকায় মজুদ করা হয়েছে। এই পাথর সিন্ডিকেটের সাথে সরকারি কিছু কর্মচারী-শিক্ষকও জড়িত হয়ে পড়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন এলাকাবাসী।
আলীকদম উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ নায়িরুজ্জামান সাংবাদিকদের জানায়, আটককৃত তিনটি ট্রাককে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে জরিমানা করা হচ্ছে। থানায় তিনট্রাক সমপরিমাণ পাথর নিলাম দেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে। তবে ঘটনাস্থলে মজুদ পাথরের সরকারি অনুমোদনের কাগজ তিনি এখনো অফিসিয়ালি পাননি বলে স্বীকার করেন।

আরও পড়ুন
1 মন্তব্য
  1. Kazal Das বলেছেন

    ঐ পাথর ওদেরকে দিয়ে যথাস্থানে নিজ খরচে রেখে আসার আইন করতে হবে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।