আলীকদমে শত্রুতার আগুনে পুড়লো গরীবের বসতঘর

বান্দরবানের আলীকদমে প্রতিপক্ষ কর্তৃক জাহানারা বেগম নামের এক হত দরিদ্র নারীর কাঁচা বসতঘর আগুনে পুড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। উপজেলার চৈক্ষ্যং ইউনিয়নের দুর্গম পাহাড়ি পানির ঝিরি পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। এতে প্রায় দেড় লাখ টাকা হবে বলে ধারণা করছেন ক্ষতিগ্রস্তরা। আজ বৃহস্পতিবার (২৩ জানুয়ারি) সকালে ক্ষতিগ্রস্ত জাহানারা বেগমের স্বামী মো. জাকের উল্লাহ লামা প্রেসক্লাবে সাংবাদিকদের কাছে এ অভিযোগ করেন।

অভিযোগে জানা যায়, ২০১২ সালে পানির ঝিরির বাসিন্দা মো. জাকের উল্লাহ জনৈক প্রু সিঅং মার্মার কাছ থেকে বিভিন্ন ফলজ বনজ বাগানসহ তিন একর জমি কিনেন। জমি কেনার পর থেকে স্ত্রী জাহানারা বেগমসহ ওই জমিতে একটি বসতঘর নির্মাণ করে বসবাস করে আসছেন। জমি কেনার আগে অবগত না করায় ক্ষিপ্ত হন পাশের বাসিন্দা মৃত সোলাইমান মিয়াজীর ছেলে নুরুল হুদা ও তার স্ত্রী তাহেরা বেগম। এর জের ধরে বিভিন্ন সময় জমিতে গরু ছাগল লেলিয়ে দিয়ে ক্ষেতের ফসল নস্ট ও হয়রানি করার পাশাপাশি জাহানারা বেগমের বসতঘর আগুনে জ্বালিয়ে দেয়ার হুমকিও দেন প্রতিপক্ষ নুরুল হুদাগং।

আরো জানা গেছে,এ ঘটনায় জাহানারা বেগম উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বরাবরে ২০১৯ সালের ১৮ নভেম্বর লিখিত অভিযোগ করেন। হুমকির দু-মাস যেতে না যেতেই গত মঙ্গলবার ভোর ৫টার দিকে হঠাৎ ঘরের চারপাশে আগুন জ্বলে ওঠে। খবর পেয়ে স্থানীয়রা আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। ততক্ষণে বসতঘরটি সম্পূর্ণ পুড়ে হয়ে যায়। অভিযোগ অস্বীকার করে নুরুল হুদা বলেন, জাহানারা বেগম ও জাকের উল্লাহর অভিযোগ মিথ্যা ও বানোয়াট।

ক্ষতিগ্রস্ত মো. জাকের উল্লাহ ও জাহানারা বেগম বলেন, ঘরে বিদ্যুতের সংযোগ নেই। আমরা ঘরে ছিলাম না বিধায় রান্নাও হয়নি দু’দিন। এ সুযোগকে কাজে লাগিয়ে প্রতিপক্ষ কোন এক সময় ঘরে আগুন লাগিয়ে দেয় বলে আমাদের ধারণা।

এ বিষয়ে আলীদকমের চৈক্ষ্যং ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য মো. আইয়ুব বলেন, জাহানারা বেগমের বসতঘর আগুনে পোড়ানোর ঘটনা কেউ জানায়নি। খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আরও পড়ুন
Loading...