আলীকদমে হাতির গায়ে আগুন দিলো মানুষ : হাতির আক্রমণে নিহত ২,আহত ১জন

বান্দরবানের আলীকদম উপজেলায় বন্য হাতি তাড়ানোর সময় হাতির গায়ে আগুন দিলে ক্ষিপ্ত হয় হাতি। আর ক্ষিপ্ত হাতির আক্রমণে দুইজন নিহত ও একজন আহত হয়েছে। রবিবার রাতে বন্য হাতির আক্রমণে এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন, উপজেলার চৈক্ষ্যং ইউনিয়নের কোনা পাড়া বাসিন্দা আব্দু সোবহানের ছেলে মনসুর আলম(১৭) ও মান্নান মেম্বার পাড়া মৃত মোঃহোসেনের ছেলে নুরুল কবির(১৮)। আহত ব্যক্তি হলেন, হাফেজ নুর ইসলামের ছেলে জোবাইর।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার মেরাইথং পাহাড় থেকে নেমে কোনাপাড়া, ফুটেরঝিরি মান্নান মেম্বার পাড়া হয়ে হাতি চলে যেতে চাইলে হাতিগুলোকে স্থানীয়রা ঘিরে ধরে আগুন নিয়ে ধাওয়া করে। একপর্যায় হাতির গাঁয়ে আগুন লাগানোর চেষ্টা করলে হাতর পাল্টা আক্রমণ করলে মনসুর আলম আহত হন এবং পরে তাকে লামা হাসাপাতালে নিয়ে গেলে ডাক্তার মৃত ঘোষণা করেন। হুমায়ন কবির ছুটাছুটিতে হাতির সামনে চলে আসে এবং হাতির আক্রমণে আহত হন। পরে তাকেও চকরিয়া নেওয়ার পথে মারা যান।

আলীকদমের তৈন রেঞ্জ কর্মকর্তা জানান, হাতিগুলো লোকালয়ে চলে আসলে স্থানীয় ও বনবিভাগ যৌথভাবে বেশ কয়েক বার হাতিগুলোকে তাড়িয়ে পাহাড়ের দিকে পাঠানোর চেষ্টা করে।

তিনি আরও বলেন, বন্য হাতির চলাচলের রাস্তায় স্থানীয়দের বাধা সৃষ্টি না করা ও পিছু না নেওয়ার জন্য বার বার বলা হলেও তারা তা মানছে না, বরং হাতির গাঁয়ে আগুনসহ বিভিন্ন ভাবে আঘাত করার চেষ্টা করায় হতাহতের ঘটনা ঘটছে।

চৈক্ষ্যং ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ফেরদৌস রহমান বলেন,নিহত ও আহত পরিবারকে প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদান করা হবে, ভবিষ্যতে এমন ঘটনা না ঘটতে সবাইকে একসাথে কাজ করার অনুরোধ জানান।

এদিকে গত ২৭ তারিখ রুপসীপাড়া পাড়া হয়ে হাতিগুলো মান্নান মেম্বার পাড়া চলে আসে। পরে বনবিভাগ ও স্থানীয় লোকজন তাড়ানোর চেষ্টা করলে মেরাইথং পাহাড়ের দিকে চলে যায়। গতকাল মেরাইথং হয়ে রুপসীপাড়া পাহাড়ে যাওয়ার পথে নিহতের ঘটনা ঘটে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।