আলীকদমে ১০ মিনিটের জনসমাগম জনশূন্যতায় পরিনত

করোনা ভাইরাসের আতংকে বান্দরবানের আলীকদম উপজেলায় ও লক ডাউন চলছে। প্রতিদিনই স্বাভাবিক নিয়ম ও দূরত্ব বজায় রেখে পণ্য ও টাকা আদান-প্রদান করছে ক্রেতা বিক্রেতার। প্রয়োজন ছাড়া কাউকে ঘর থেকে বের হতে দিচ্ছেন না প্রশাসন। কিন্তু নক ডাউনের মধ্যে আলীকদমের প্রতিদিনের জনশূন্যের চিত্র বদলে গেল লোক সমাগমে। চকরিয়া, কক্সবাজারের বিভিন্ন ব্যবসায়ীদের কারণে সাপ্তাহিক হাটবাজারে এই চিত্র দেখা যায় কিন্তু আলীকদম উপজেলা নির্বাহী অফিসার হাটবাজারে আসার মিনিট দশেকের মধ্যে বদলে গেল পুরো চিত্র। আবারও ক্রেতা বিক্রেতাসহ সকলের দূরত্ব বজায় চলার নিয়ম।

আজ সোমবার (৩০ মার্চ) সকাল দশ টা থেকে বারটা পর্যন্ত আলীকদমে সবচেয়ে বড় সাপ্তাহিক হাটবাজারে অবস্থান করেন আলীকদম উপজেলার নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ সায়েদ ইকবাল। এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন আলীকদম থানার অফিসার ইনচার্জ কাজী রকিব উদ্দিন, সেনাবাহিনী, আলীকদম সদরের চেয়ারম্যান নাছির উদ্দীন।

আলীকদম উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ সায়েদ ইকবাল চকরিয়া,কক্সবাজার আগত ব্যবসায়ীসহ নিত্যপণ্যের দোকান ছাড়া অন্য ব্যবসায়ীদের বলেন, আমরা চাই আপনারা ব্যবসা করেন। বাজারে আসেন কিন্তু এখন তো দেশের দূর্যোগকালীন সময়।আপনি, আপনার পরিবার, জনসাধারণের নিরাপত্তা ও সুস্থতার কথা চিন্তা করুন। এটি আপনাদের আমাদের সকলের দায়িত্ব।আমরা যারা সারাক্ষণ বাইরে থাকি। আমরা তো সবাই আপনাদের নিরাপদ ও সুস্থ রাখার জন্য এতো কিছু করছি। সরকারি নির্দেশনা মানুন নিজে ও সকলকে সুস্থ রাখুন।

তিনি আরো বলেন,আমরা বাইরে ঘুরছি,আপনারা নিজেদের ঘরে থাকার জন্য। পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত অন্য জেলার বা উপজেলার কোন ব্যবসায়ী আসবেন না। আমরা চাই সবাই নির্বিন্নে ঘুরাঘুরি করুন, বাজার উম্মুক্ত থাকুক কিন্তু দেশের পরিস্থিতিটাও আপনাদের চিন্তা করতে হবে। আমরা সবাই যদি সবাইকে একটু সহযোগিতা করি।তাহলে এ সমস্যা থেকে দ্রুত মুক্তি পাব। যদি আপনারা না শুনেন, আমরা কঠোর অবস্থানে যেতে বাধ্য হব। আশা করি আপনারা সেটি কেউ চান না।

এসময় উপজেলা প্রশাসনের নির্বাহী অফিসার, সেনাবাহিনী,পুলিশের কঠোর অবস্থানের কারণে হাটবাজারে নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের দোকান ছাড়া অন্য দোকান গুলো বন্ধ ও বাহির থেকে আগত ব্যবসায়ীরা বাজার এলাকা ছাড়তে বাধ্য হন।

এদিকে আলীকদম যুব রেড ক্রিসেন্টের স্বেচ্ছাসেবকরা প্রতিদিন বিভিন্ন এলাকা স্প্রে করছেন। আলীকদম উপজেলার ঘরবন্দী দরিদ্র ও দুস্থ পরিবারের মাঝে উপজেলা প্রশাসন,আলীকদম জোন ও ব্যক্তি উদ্যোগে ত্রাণ সামগ্রী দিচ্ছেন।

আরও পড়ুন
Loading...