ইউপিডিএফ কর্মী পরেশ ত্রিপুরার হত্যার ঘটনায় থানায় মামলা

খাগড়াছড়ির পানছড়িতে পরেশ ত্রিপুরা মহেন নামে ইউপিডিএফ প্রসীত গ্রুপের এক কর্মী নিহতের ঘটনায় মামলা হয়েছে।

আজ শনিবার (১১জানুয়ারি) দুপুরে পানছড়ি থানায় পুলিশ বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করে। নিহত পরেশ ত্রিপুরা মহেনের ময়নাতদন্ত খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে সম্পন্ন হয়েছে। সে পানছড়ির পুদ্দিনিপাড়ার মিলন বিকাশ ত্রিপুরার ছেলে। দীর্ঘ ৮ বছর ধরে পরেশ ইউপিডিএফর রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত ছিল।

ইউপিডিএফ প্রসীত গ্রুপের প্রচার সেলের সম্পাদক নিরন চাকমা প্রেরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে, পরেশ ত্রিপুরাকে হত্যার জন্য সিভিল পোষাকের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও তাদের মদদপুষ্ট সন্ত্রাসীদের দায়ী করা হয়েছে। নিজেদের কর্মী হত্যার প্রতিবাদে আগামীকাল পানছড়ি উপজেলার হাট বাজার বয়কট ও সোমবার আধাবেলা সড়ক অবরোধের ডাক দিয়েছে ইউপিডিএফ প্রসীত গ্রুপ।

পানছড়ি থানার ওসি নুরুল আলম জানান, পরেশ ত্রিপুরা মহেন নিহতের ঘটনায় পুলিশ বাদি হয়ে একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করছে। শুক্রবার রাতে মরাটিলা এলাকায় চাঁদাবাজী করার সময় পরেশ ও তার সহযোগী নিরাপত্তা বাহিনীর অবস্থান টের পেয়ে গুলি করে পালিয়ে যেতে চায়। এসময় নিরাপত্তা বাহিনী আত্মরক্ষার্থে গুলি ছুঁড়লে ঘটনাস্থলে পরেশ ত্রিপুরা মহেন মারা যায়। অপরজন পালিয়ে যায়।

প্রসঙ্গত, শুক্রবার রাত ১১ টার দিকে পানছড়ি উপজেলার মরাটিলা এলাকায় গুলিতে নিহত হয় পরেশ ত্রিপুরা মহেন। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ একটি পিস্তল, একটি মটরসাইকেল ও নগদ ৪৩ হাজার টাকা উদ্ধার করে।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।