ঈদকে ঘিরে কাপ্তাইয়ের বিনোদন কেন্দ্রগুলো প্রস্তুত

রাঙ্গামাটিতে অবস্থিত কাপ্তাই উপজেলা। কাপ্তাইয়ের পাশ দিয়ে বয়ে গেছে দেশের অন্যতম বৃহত্তম কাপ্তাই লেক, রয়েছে উঁচু-নিচু পাহাড়, পাহাড়ের পাশে বয়ে যাওয়া আঁকাবাঁকা শীতল জলের কর্ণফুলী নদী, নদী ধারে গড়ে উঠা অনেক পর্যটন কেন্দ্র।

প্রতিবছর ঈদ উপলক্ষে পর্যটন কেন্দ্র গুলোতে পর্যটকের ঢ়ল নামলেও গত ২ বছর করোনার কারনে পর্যটক শূণ্য ছিল কাপ্তাইয়ের বিনোদন কেন্দ্রগুলো। কিন্ত এইবার করোনামুক্ত ঈদ উদযাপন করবেন মুসলমান ধর্মের লোকজন। এছাড়া প্রায় এক সপ্তাহ টানা ঈদের ছুটি পাওয়া যাবে। ফলে কাপ্তাইয়ে পর্যটন ব্যবসার সাথে জড়িত সংশ্লিষ্টরা আশা করছেন এইবছর কাপ্তাইয়ে রেকর্ড পরিমান পর্যটকের আগমন ঘটবে।

কাপ্তাই উপজেলায় বেশ কয়েকটি পর্যটন কেন্দ্র রয়েছে যার মধ্যে অন্যতম কাপ্তাই শিলছড়ি প্রশান্তি পার্ক, ওয়াগ্গা প্যানোরোমা জুম রেস্তোরা, শিলছড়ি বনশ্রী পর্যটন কেন্দ্র, লেক প্যারাডাইস, লেকশোর পিকনিক স্পট, লেকভিউ পিকনিক স্পট, শিলছড়ি নিঃসর্গ রিভার ভ্যালি, পাহাড়িকা পিকনিক স্পট, কাপ্তাই রিভার ভিউ পার্ক।

কাপ্তাই শিলছড়ি বনশ্রী পর্যটন কেন্দ্রের ব্যবস্হাপনা পরিচালক প্রকৌশলী রুবাইয়েত আক্তার জানান, করোনা ভাইরাসের ফলে বিগত ২ বছর পর্যটন ব্যবসায় মন্দা ছিল। এইবছর আমরা আশা করছি হাজারো পর্যটকের আগমন ঘটবে।

এদিকে কাপ্তাই বালুচরে অবস্হিত প্রশান্তি পিকনিক স্পট এর পরিচালক আনোয়ারুল ইসলাম চৌধুরী বেবী জানান, কাপ্তাইয়ের অপরুপ সৌন্দর্যে মুগ্ধ হয়ে পর্যটন মৌসুম ছাড়াও সারা বছর পর্যটকদের আনাগোনা হতো। বিশেষ করে ঈদের ছুটিতে পর্যটকের ঢল নামে বেশী। ঈদকে সামনে রেখে আমরা নতুন রুপে সাজিয়েছি প্রশান্তি পার্ককে। পর্যটকরা ঈদে এসে ভিন্নতার স্বাদ পাবে। কর্ণফুলি নদীতে কায়াকিং করতে পারবেন পর্যটকরা।

কাপ্তাই শিলছড়িতে চলতি সপ্তাহে নতুন ভাবে যাত্রা শুরু করেছে নির্সগ রিভার ভ্যালী। এর উপদেষ্টা মোঃ নাছির উদ্দীন জানান, পর্যটকদের একটু ভিন্নতা দেবার লক্ষ্যে আমরা কয়েকজনে মিলে এই পর্যটন কেন্দ্রটি গড়ে তুলেছি। এই পর্যটন স্পটে বসে কর্ণফুলি নদীর দৃশ্য অবলোকন করার পাশাপাশি এখানে দেশীয় বিভিন্ন খাবারের স্বাদ গ্রহন করতে পারবেন পর্যটকরা।

এদিকে শনিবার দুপুরে কাপ্তাইয়ের প্যানোরোমা জুম রেস্তোরাঁয় গিয়ে দেখা যায়, ঈদকে সামনে রেখে আরোও নান্দনিক ভাবে সাজানো হচ্ছে এই পিকনিক স্পটকে। কর্ণফুলী নদীর তীরে স্থাপন করা হয়েছে “আই লাভ ওয়াগ্গা” পয়েন্ট। যেখান বসে ছবি তোলা সহ কর্ণফুলি নদীর সৌন্দর্য উপভোগ করতে পারবেন পর্যটকরা। এইছাড়া সেলফি বোট, নতুন ভাবে শিশু পার্ককে শিশুদের বিনোদন উপযোগী খেলাধুলার আইটেম স্থাপন করা হয়েছে।

এইছাড়া কাপ্তাই লেকভিউ পিকনিক স্পট, রিভার ভিউ, লেক প্যারাডাইস লেকশোর পিকনিক স্পটে গিয়ে দেখা যায়, ঈদকে সামনে রেখে নতুন রুপে আরোও আর্কষনীয় করে তোলা হচ্ছে এইসব বিনোদন কেন্দ্র গুলো।

কাপ্তাই ফোরামের এডমিন উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এ আর লিমন জানান, নয়নাভিরাম কাপ্তাই লেক, কর্নফুলি নদী, পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্র, কেপিএম মিল, সীতাপাহাড়, ওয়াগ্গা চা বাগান, চিৎমরম বৌদ্ধ বিহার সহ কাপ্তাইয়ের প্রতিটি পড়তে পড়তে লুকিয়ে আছে সৌন্দর্য্য। তাই তো সারা বছর পর্যটকের আনাগোনায় মুখরিত থাকে কাপ্তাই। আমরা আশা করছি এবার ঈদে রেকর্ড পরিমান পর্যটক আসবে রুপসী কাপ্তাইয়ে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।