এই ভাবেই মুক্তি পেতে চাই : আত্মহত্যার আগে কন্ঠশিল্পী পংকজের ভিডিও বার্তা

বাই,ভালো থাকিস, বেঁচে থেকে তো মুক্তি পেতে পারবো না, তাই এই ভাবেই মুক্তি পেতে চাই। আত্মহত্যার আগে ভিডিও বার্তায় কথাগুলো বলছিলেন বান্দরবানের জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পী পংকজ দেবনাথ।

অনুসন্ধানে পাওয়া পাহাড়বার্তা’র নির্বাহী সম্পাদক এস বাসু দাশ এর কাছে সংরক্ষিত এই গুনি কন্ঠশিল্পীর শেষ ভিডিও বার্তা অবলম্বনে এক্সক্লুসিভ প্রতিবেদন।

পংকজের নিজের তৈরি করা মাত্র ১৭ সেকেন্ডের এই ভিডিও বার্তায় দেখা যায়, এসময় খালি গায়ে পংকজকে বেশ প্রানবন্ত দেখা যায়, তার মাথার উপর ঝুলছিলো ফাঁসির দড়ি। এই কথাগুলো বলার সময় তাকে বেশ হাসিমাখা মুখে কথাগুলো বলতে দেখা যায় এবং ভিডিও বার্তার শেষ পর্যায়ে সে একটি চুম্বন প্রদর্শন করে।

বান্দরবানের জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পী পংকজ দেবনাথ (২৯) আত্মহত্যা করেন। আজ বুধবার (১৬ অক্টোবর) রাত ১টার দিতে তিনি জেলা শহরের বালাঘাটাস্থ বাসায় গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন। বান্দরবান জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি কাউসার সোহাগ পাহাড়বার্তাকে তার আত্মহত্যার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, আজ রাতে জেলা শহরের বালাঘাটাস্থ বাসার ছাদের বিম এর সাথে ফাঁস লাগানো অবস্থায় পরিবারের লোকজন ও বন্ধুরা দেখতে পেয়ে তাকে দ্রুত উদ্ধার করে বান্দরবান সদর হাসপাতালে নেয়,পরে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষনা করেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এই শিল্পীর এক বন্ধু পাহাড়বার্তাকে জানান, তিনি আত্মহত্যার আগে ফাঁসির দড়িতে ঝুলে পড়ছে এমন একটি ভিডিও তার এক বন্ধুকে ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারে পাঠান । আর বিষয়টি এই বন্ধু পংকজের অন্য বন্ধুদের জানালে তারা দ্রুত মোটরসাইকেল যোগে বালাঘাটাস্থ বাসায় যায় এবং তাকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পান। এরপর তাকে দ্রুত চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়।

আরো জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে জেলা শহরের মার্মা সম্প্রদায়ের এক মেয়ের সাথে সম্পর্ক ছিলো বান্দরবানে জনপ্রিয় এই শিল্পীর। কিছুদিন ধরে এই প্রেমীকার সাথে বনিবনা না হওয়ায় তিনি আত্মহত্যার পথ বেছে নেন।

এদিকে জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পী পংকজ দেবনাথ এর মৃত্যুর সংবাদ জানাজানি হলে তার বন্ধুমহল ও স্থানীয় শিল্পীদের মাঝে শোকের ছায়া নেমে আসে, সদর হাসপাতালে তাকে এক নজর দেখতে ভীর করে স্থানীয়রা।

উল্লেখ্য,বেসরকারী টেলিভিশন চ্যানেল এস.এ টিভি’র বাংলাদেশী আইডল প্রতিযোগিতায় বান্দরবানের তরুণ কন্ঠশিল্পী পংকজ দেবনাথ সেরা ৮ এর মধ্যে ছিল।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।