কাপ্তাইয়ের যে প্রতিবন্ধী সিএনজি চালক অসচ্ছল রোগী বহন করেন বিনা ভাড়ায়

রাঙামাটি জেলার কাপ্তাই উপজেলার ১ নং চন্দ্রঘোনা ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ড এর মৃত মো: বদিউল আলমের প্রতিবন্ধী সন্তান মো: আলী হোসেন। ছোট বেলা পোলিও আক্রান্ত হয়ে বাম পা অনেকটা অবশ হয়ে পড়ে তার। তাই পেশা হিসাবে বেছে নিয়েছেন সিএনজি চালানোকে। কিন্ত একজন শারীরিক প্রতিবন্ধী হয়েও নিজেকে উৎসর্গ করেছেন আত্মমানবতার সেবায়। সম্পূর্ণ বিনা ভাড়ায় অসচ্ছল প্রতিবন্ধী রোগীদের তিনি নিয়ে যান হাসপাতাল এ।

আজ সোমবার (৩০ মার্চ) উপজেলা সদরে দেখা হয় তাঁর সাথে। তাঁর সিএনজি নিয়ে চন্দ্রঘোনার দৃষ্টি প্রতিবন্ধীর মো: রাসেল এবং শারীরিক প্রতিবন্ধী মো: বেলালকে বিনা ভাড়ায় উপজেলা সদরে নিয়ে আসেন ত্রানের জন্য।

দৃষ্টি প্রতিবন্ধী রাসেল ও শারীরীক প্রতিবন্ধী বেলাল জানান, বিগত ৭/৮ বছর ধরে তারা আলী হোসেন এর সিএনজি তে করে চলে ফেরা করছে, কিন্ত কোন ভাড়াতো নেয় নাই, উল্টা টাকা দিয়ে সহায়তা করেছেন তিনি।

শারীরিক প্রতিবন্ধী সিএনজি চালক মো: আলী হোসেন জানান, বিগত ৭/৮ বছর ধরে তিনি শত শত অসচ্ছল প্রতিবন্ধীদের বিনা ভাড়ায় হাসপাতাল এবং হাটবাজার এ নিয়ে গেছেন এবং নিজের উপার্জিত অর্থ হতে তাদের সহায়তা করেছেন। ভবিষ্যৎতে তিনি যতদিন বেঁচে থাকবেন ততদিন করবেন বলে এই প্রতিবেদককে জানান।

কাপ্তাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশ্রাফ আহমেদ রাসেল শারীরিক প্রতিবন্ধী সিএনজি চালক মো: আলী হোসেন এর এই কার্যক্রমের প্রশংসা করে বলেন, সমাজের সকল মানুষ যার যার ক্ষেত্রে যদি এই ছোট ছোট সেবা মূলক কাজ করে তাহলে মানবতা জেগে উঠবে, মনুষত্ব জেগে উঠবে, দেশ সোনার বাংলায় গড়ার ক্ষেত্রে একধাপ এগিয়ে যাবে।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।