কাপ্তাইয়ে খেলাধুলার বিবাদের জেরে ১ জনকে কুপিয়েছে প্রতিপক্ষ

রাঙামাটির কাপ্তাই উপজেলার ৩ নং চিৎমরম ইউনিয়ন এর ৫ নং ওয়ার্ডের মুসলিম পাড়ায় খেলাধুলা সংক্রান্ত বিবাদের জেরে ঐ এলাকার বাসিন্দা মনজুরুল হক (৩৫) কে ধারালো দা দিয়ে আঘাত করেছে একই এলাকার পলাশ মিস্ত্রি (৩৫) ও তার দলবল। গুরুতর আহত মনজুরুল হক চিৎমরম ইউনিয়ন এর সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ আজিজুল হকের ছেলে।

রবিবার (১মে) রাত ৯ টার দিকে চিৎমরম এর মুসলিম পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে বলে জানান, ৫ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোঃ সিরাজুল হক।

তিনি জানান, রবিবার সকালে দুই পরিবারের ছেলেদের মধ্যে খেলাধুলা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে বাকবিতন্ডা হয়। পুলিশ এবং জনপ্রতিনিধিরা এই ঘটনার মীমাংসা করি। কিন্ত রাত ৯ টায় এই ঘটনার জেরে পলাশ মিস্ত্রি, তার সঙ্গীয় সন্ত্রাসী রফিক ও আরোও লোকজন নিয়ে এসে মনজুরুলকে ধারালো দা দিয়ে আঘাত করলে মনজুরুলের মাথায় ও বাম হাতে গুরুতর আঘাত লাগে।

আহত ব্যক্তিকে স্থানীয় এবং তাঁর পরিবারের সদস্যরা রাতে চিকিৎসার জন্য প্রথমে চন্দ্রঘোনা খ্রীষ্টিয়ান মিশন হাসপাতালে নিয়ে আনলে কর্তব্যরত চিকিৎসক রোগীর অবস্থা আশঙ্কাজনক দেখে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

এদিকে এই ঘটনার সাথে সাথে ইউপি সদস্য মোঃ সিরাজুল হক স্থানীয়দের সহায়তায় অভিযুক্ত পলাশ মিস্ত্রি, তাঁর স্ত্রী ও মেয়ে এবং তার সহযোগী রফিকের স্ত্রীকে আটক করে চন্দ্রঘোনা থানা পুলিশ কে খবর দেন।

চন্দ্রঘোনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইকবাল বাহার চৌধুরী বলেন, ইউপি সদস্যের মাধ্যমে খবর পাওয়ার সাথে সাথে পুলিশ সেই এলাকায় গিয়ে ৪ জনকে আটক করে।

ওসি জানান, এই বিষয়ে পরবর্তীতে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এদিকে অভিযুক্ত পলাশ মিস্ত্রির সহযোগী রফিক পলাতক রয়েছেন বলে ইউপি সদস্য জানান।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।