কাপ্তাইয়ে গোসল করতে গিয়ে ২ পর্যটকের সলিল সমাধি

রাঙামাটির কাপ্তাই উপজেলার সীতাঘাট মন্দির সংলগ্ন কর্ণফুলী নদীর পানিতে গোসল করতে নেমে ৬ পর্যটক নদীর পানিতে তলিয়ে গেছেন। তাদের মধ্যে ৪ জন সাতঁরিয়ে উঠতে পারলে ২ জন নদীর পানিতে তলিয়ে যায় বলে জানান, কাপ্তাই ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স এর পরিদর্শক নুরুল করিম।
আজ বুধবার (১১ মে) দুপুর ২.৪৫ মিনিটের দিকে এই ঘটনা ঘটে।

খবর পেয়ে কাপ্তাই ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ৩টা ১০ মিনিটের দিকে ঘটনাস্থলে এসে মুমূর্ষ অবস্থায় একজনকে উদ্ধার করে কাপ্তাই উপজেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে যান। বর্তমানে সেই সুস্থ আছেন বলে জানান উপজেলা সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক।

এদিকে ঘটনার সংবাদ পাবার সাথে সাথে বিকেল ৪ টা ৩৯ মিনিটে লেফট্যানেন্ট কমান্ডার ফয়জুল ইসলাম মন্ডল নেতৃত্বে এবং লেঃ কমাঃ সেলিম রেজাসহ ৮ সদস্যের একটি নৌ বাহিনী ডুবুরি দল সীতার ঘাট এলাকায় কর্নফুলি নদীতে নিখোঁজ পর্যটককের সন্ধ্যানে উদ্ধার কার্যক্রম শুরু করেন এবং বিকেল ৫ টায় একজনকে মৃত উদ্ধার করেন। মৃত উদ্ধারকৃত ১৯ বছর বয়সী যুবক লোকেস বৈদ্য, চট্টগ্রাম জেলার বোয়ালখালী উপজেলার শাকপুরা গ্রামের অপু বৈদ্যের ছেলে। সেই চট্টগ্রাম ইসলামিয়া কলেজে প্রথম বর্ষে অধ্যয়নরত আছেন। বর্তমানে সে তার পরিবার সহ সদরঘাটে বসবাস করছে। তার বাবা মৎস্য অধিদপ্তরে চাকরি করেন।

এদিকে এই ঘটনায় চট্টগ্রাম সদরঘাট এলাকার অপূর্ব সাহা(১৮)) নামে একজন নিখোঁজ রয়েছে বলে জানান তার বন্ধু তৌহিদুল ইসলাম।

এদিকে ঘটনার সংবাদ পাওয়ার পর পরই কাপ্তাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুনতাসির জাহান ও কাপ্তাই সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রওশন আরা রব ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত (সন্ধ্যা ৬ টা ৪০ মিনিট) কাপ্তাই নৌ বাহিনী ডুবুরি দল নিখোঁজ যুবকের মৃতদেহ উদ্ধারে ঘটনাস্থল এবং এর আশেপাশে এলাকায় উদ্ধার কার্যক্রম পরিচালনা করছেন।

জানা যায়, চট্টগ্রাম হতে ৬ জন পর্যটক সকালে কাপ্তাই উপজেলাধীন চন্দ্রঘোনা মিশনঘাট এলাকায় আসে। সেখান থেকে তারা নৌকা ভাড়া করে চিৎমরম বৌদ্ধ বিহার ঘাটে আসে। নাস্তা করার পর তারা আবার ভাড়া করা নৌকা যোগে ঘটনাস্থলে এসের গোসল করতে নামে। আগত পর্যটকরা চট্টগ্রামের বিভিন্ন কলেজে অধ্যয়নরত বলে জানা যায়।

ঘটনার সংবাদ পেয়ে কাপ্তাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জনাব মুনতাসির জাহান, শহীদ মোয়াজ্জম নৌঘাঁটির লেঃ কমান্ডার মোঃ ফয়জুর রহমান এর নেতৃত্বে ১০ সদস্য বিশিষ্ট একটি নৌ ডুবুরী দল ও কাপ্তাই থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে আসে এবং নৌ ডুবুরী দল উদ্ধার অভিযান চালিয়ে আনুমানিক ১৭০০ ঘটিকার সময় বর্ণিত লোকেশ বৈদ্যকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করে। নৌ ও ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরী দল যৌথ ভাবে উদ্ধার তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।