কাপ্তাইয়ে স্যালাইনের প্যাকেটে মদ পাচারকালে ১ জন আটক

রাঙামাটির কাপ্তাইয়ের রাইখালীর দেশীয় তৈরী চোলাই মদ স্যালাইনের প্যাকেটে ভরে চট্টগ্রামে বিক্রয়ের উদ্যোশে নিয়ে যাওয়ার সময় আজ শুক্রবার (১১ই সেপ্টেম্বর) দুপুরে পুলিশের হাতে ১৫লিটার মদসহ আটক হয়েছে কুখ্যাত মাদক এবং ‘নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন’ মামলার প্রধান আসামী জনি (৩০)। সে রাইখালী ইউনিয়নের ডলুছড়ি এলাকার মৃত আবুল কাসেমের ছেলে।

কাপ্তাই থানা পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আতিকুল জানান, কাপ্তাই থেকে ১৫টি স্যালাইনের প্যাকেটে করে চট্টগ্রামে মদ পাচারকালে কুখ্যাত আসামী জনিকে চন্দ্রঘোনার কেপিএম এলাকা হতে শুক্রবার দুপুরে আটক করে কাপ্তাই থানা পুলিশ।

তিনি আরও জানান, সে দীর্ঘ ৬ থেকে ৭ বছর যাবত মাদক বিক্রয়ের সঙ্গে জড়িত। কাপ্তাই রাইখালী থেকে মদ সংগ্রহ করে চট্টগ্রামের বহদ্দারহাট, ষোলশহরসহ বিভিন্ন এলাকায় পাইকারী বিক্রয় করতো জনি। এসব অপরাধের কারণে অনেকবার থানা-হাজতে আসতে হয়েছে তাকে। তার বিরুদ্ধে চট্টগ্রামের চাঁন্দগাও থানায় ৩টি মাদক মামলা, কোতয়ালী থানায় ৩টি মাদকের মামলা, রাঙ্গুনিয়া থানায় ১টি মাদকের মামলা সহ রয়েছে ‘নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ১টি মামলা রয়েছে ।

এছাড়াও কাপ্তাই থানায় পূর্বে একটি মাদক নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করা ছিল তার বিরুদ্ধে। প্রতিটি মামলাতেই দেখা গেছে সে দেশীয় তৈরী চোলাই মদ নানান কৌশলে বিক্রয়ের অপরাধে জড়িত হয়েছে।

কাপ্তাই থানা অফিসার ইনচার্জ মো. নাছির উদ্দিন বলেন, জনির বিরুদ্ধে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের কাপ্তাই থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। শনিবার (১২ই সেপ্টম্বর) সকালে তাকে রাঙামাটি আদালতে প্রেরণ করা হবে।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।