কাপ্তাই ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকসহ ৪ জনের করোনা সনাক্ত

রাঙামাটি জেলার কাপ্তাই উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এ আর লিমনসহ আরোও ৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

তৎমধ্যে ২ জন পুলিশ সদস্য যাদের মধ্যে ১ জন ৩৪ বছর বয়সী কাপ্তাই থানার পুলিশ সদস্য এবং ১ জন ৩১ বছর বয়সী চন্দ্রঘোনা কেপিএম ডিসিএল বাংলার পুলিশ সদস্য। এইছাড়া আক্রান্তদের মধ্যে ১ জন ৩৮ বছর বয়সী কাপ্তাই উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগের স্বাস্থ্য সহকারী, যিনি কাপ্তাই হরিনছড়া ব্লকে কাজ করেন এবং অপর ১ জন ৩৫ বছর বয়সী কাপ্তাই জীবতলি সেনাবাহিনীর এলাকার বেসামরিক ব্যক্তি।

কাপ্তাই উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগের করোনার ফোকাল পারসন ডা: ওমর ফারুক রনি জানান, আজ রবিবার(৫ জুলাই) দুপুরে চট্রগ্রামের সিভাসু হতে আসা রিপোর্টে কাপ্তাইয়ে ৫ জনের করোনা পজেটিভ আসে। তারা গত ২৯ জুন, ৩০ জুন এবং ১ জুলাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নমুনা দিয়েছিলেন।

কাপ্তাই থানার ওসি নাসির উদ্দীন জানান, আক্রান্ত পুলিশ সদস্যদের মধ্যে কাপ্তাই থানার একজন পুলিশ সদস্য নমুনা দেওয়ার পর বড়ইছড়ি কর্নফুলি নুরুল হুদা কাদেরী উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রাবাসে আইসোলেশনে রাখা হয়েছিল, বর্তমানে ঐ পুলিশ সদস্য এই কেন্দ্রে থেকে ডাক্তারের পরামর্শে চিকিৎসা নিচ্ছেন। এইছাড়া অপর পুলিশ সদস্য কেপিএম ডিসিএল বাংলা পুলিশ ফাঁড়িতে আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এ আর লিমন জানান, করোনার যে দিন হতে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে সেই দিন হতে আমি কাপ্তাই উপজেলা প্রশাসনের সাথে করোনা সংক্রমণ রোধে মাঠে কাজ করেছি, ফলে কোন না কোনভাবে আমি আক্রান্ত হয়েছি। তিনি জানান, বর্তমানে আমি বাসায় আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছি।

করোনার ফোকাল পারসন ডা: ওমর ফারুক রনি জানান, করোনা শনাক্ত অন্যান্যদের শারীরীক অবস্থা ভালো থাকায় তারা নিজ নিজ বাসভবনে আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।