ক্যশৈহ্লা’কে জড়িয়ে কাজী মুজিবের বক্তব্যের নিন্দা ও প্রতিবাদ জানালো বান্দরবান আওয়ামী লীগ

বান্দরবানের একটি সমাবেশে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ক্যশৈহ্লাকে জড়িয়ে মিথ্যা ও বিভ্রান্তিমূলক বক্ত্যব্যের প্রতিবাদ জানিয়েছে বান্দরবান জেলা আওয়ামী লীগ।

জেলা আওয়ামীলীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক সাদেক হোসেন চৌধুরী স্বাক্ষরিত আজ বুধবার (২১ আগস্ট) প্রেরিত এক বিবৃতিতে বলেন,কোন অসত্য সংবাদের উদ্ধৃতি দিয়ে এভাবে সমাবেশে বিভ্রান্তিমূলক বক্তব্য প্রদান করা, বান্দরবান জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি জনাব ক্যশৈহ্লা কে হেয় প্রতিপন্ন করার সামিল।

দলের নাম ভাঙিয়ে বিভিন্ন অপকর্ম ও বিশৃংখলা সৃষ্টির দায়ে বান্দরবান আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কৃত কাজী মজিব বিভিন্নভাবে বান্দরবান জেলা আওয়ামী লীগের ঐক্য বিনষ্টের চেষ্টা চালিয়ে আসছে। নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের বিরুদ্ধভচারণ থেকে শুরু করে নানা অপতৎপরতার কারণে তাকে অনেক আগেই নেতাকর্মীরা প্রত্যাখ্যান করে আস্তাকুঁড়ে নিক্ষেপ করেছে।

দলে কোন ভাবে জায়গা পাওয়ার সমস্ত চেষ্টা ব্যর্থ হয়ে যাওয়ার পর কাজী মুজিব মাঠ ঘোলা করে ফায়দা লুটার জন্য তৎপর হয়ে উঠেছে। আওয়ামী লীগে থেকে সম্প্রীতি বিনষ্টের যেভাবে অপচেষ্টা করে সংগঠনের ভাবমূর্তি নষ্ট করতে চেয়েছিল এই ব্যক্তি, ঠিক একই চরিত্রে আবির্ভূত হয়ে সরাসরি প্রতিক্রিয়াশীল চক্রের ব্যানার ধরেছে। বর্তমানে যাদের সাথে নিয়ে মাঠ গরম করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে তারা বিভিন্নভাবে বান্দরবানে গণপ্রত্যাখ্যাত। এমন অনেক আছেন যারা পারিবারিক ভাবেও প্রত্যাখ্যাত।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়,আমরা সুস্পষ্টভাবে বলতে চাই, বান্দরবান জেলা আওয়ামী লীগ, পার্বত্য বান্দরবানের পাহাড়ি-বাঙ্গালী তথা সকল জনগোষ্ঠীর প্রতিনিধিত্বশীল একটি অসাম্প্রদায়িক সংগঠণ। এই এলাকার আপামর জনতা আমাদের প্রাণপ্রিয় নেতা বার বার নির্বাচিত সংসদ সদস্য আধুনিক বান্দরবানের রূপকার বীর বাহাদুর উশৈসিং এর নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরতœ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে পার্বত্য চট্টগ্রামের বিরাজমান সমস্যা সমাধানের পাশাপাশি পার্বত্য এলাকায় যেভাবে উন্নয়নের ধারা সূচিত হয়েছে, এলাকার অনগ্রসর পিছিয়ে পড়া জনগোষ্টী যেভাবে শিক্ষা দীক্ষায় সামাজিকভাবে এগিয়ে চলেছে সে অগ্রযাত্রাকে বাঁধাগ্রস্থ করার জন্য ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে এ ধরনের বিভ্রান্তি ছড়ানো হচ্ছে বলে আমরা মনে করি।

পরিশেষে বান্দরবান জেলা আওয়ামী লীগের সফল সভাপতি, আমাদের প্রিয় নেতা, ক্যশৈহ্লাকে জড়িয়ে যে বিভ্রান্তিমূলক বক্তব্য দেয়া হয়েছে আমরা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং এ ধরনের বক্তব্য প্রদান থেকে আগামীতে বিরত থাকার আহবান জানাচ্ছি । এরপরও যদি বিভ্রান্তিমূলক বক্তব্য প্রদান করা হয় আমরা এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় আইনগত উদ্যোগসহ কঠোর কর্মসূচী নিতে বাধ্য হবো।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।