খাগড়াছড়িতে অপহৃত ৩ গ্রামবাসী উদ্ধার

খাগড়াছড়ির দীঘিনালা উপজেলা থেকে অপহৃত ৩ গ্রামবাসীকে উদ্ধার করা হয়েছে। আজ বুধবার (১৪ অক্টোবর) বিকেলে তাদেরকে চিফ জুড়িশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে জবানবন্দি প্রদানের জন্য হাজির করা হয়। এসময় তারা জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোরশোদুল আলমের আদালতে জবানবন্দি দেয়।

উদ্ধার হওয়ার গ্রামবাসী জানান, তাদের হাত ও চোখ বেঁধে অপহরণ করা হয়। জবানবন্দিতে তারা অপহরণকারীদের চিনতে পারেনি বলে উল্লেখ করেন। অপহরণের তিনদিন পর দীঘিনালা উপজেলার বাঘাইছড়িমুখ এলাকায় তাদের ছেড়ে দেয়া হয়।

এর আগে অপহৃত রাজলক্ষ্মী চাকমার স্বামী এবং রণ জ্যোতি চাকমার পিতা ধর্ম দাশ চাকমা বাদী হয়ে দীঘিনালা থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলায় ইউপিডিএফ নেতা অমর সিন্ধু চাকমাসহ ৫ জনকে আসামী করা হয়। অন্য আসামীর হলেন, দানবীর চাকমা,তৃপ্তি রানী চাকমা,সুশীল কুমারচাকমা ও ফণী ভূষণ চাকমা।

আরো জানা গেছে,গত রোববার সকালে তাদেরকে ইউপিডিএফ নেতা অমর চাকমা ডেকে নিয়ে যায়, এরপর থেকে তারা নিখোঁজ ছিলেন। অপহরণের তিনদিন পর তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়।

তবে ইউপিডিএফ এর জেলা সংগঠক অংগ্যা মারমা অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন,” ইউপিডিএফ কোন অপহরণের সাথে জড়িত না । পার্বত্য চট্টগ্রামে অস্থিরতা তৈরি করার জন্য একটি পক্ষ খুন অপহরণ করছে । ইউপিডিএফ অপহরণের রাজনীতিতে বিশ্বাস করে না।”

দীঘিনালা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) উত্তম চন্দ্র দেব ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, অপহৃতরা ফিরে এসেছে। অপহরণের ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে, তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।