খাগড়াছড়িতে ইউপিডিএফর সংবাদ সম্মেলন : মামলা না নেয়ার অভিযোগ, ৭ দফা কর্মসূচি ঘোষণা

খাগড়াছড়িতে ইউপিডিএফর সংবাদ সম্মেলন
খাগড়াছড়িতে সংবাদ সম্মেলন করে মিঠুন চাকমার হত্যাকারীদের গ্রেফতারের দাবি ও পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা করেছে ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট(ইউপিডিএফ)। সোমবার বেলা সাড়ে ১১টায় খাগড়াছড়ি সদরের স্বণির্ভর এলাকার কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ইউপিডিএফ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য নতুন কুমার চাকমা।
লিখিত বক্তব্যে মিঠুন চাকমার মৃত্যুদেহে সংগঠনের পক্ষ থেকে শেষশ্রদ্ধা জানাতে প্রশাসনের বাধা প্রদানের নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে তার হত্যাকারীদের গ্রেফতারের দাবি জানিয়ে পার্বত্য চট্টগ্রামে বিরাজমান পরিস্থিতির প্রেক্ষিতে ৭ দফা কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।
সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে ইউপিডিএফ সংগঠক মাইকেল চাকমা অভিযোগ করে বলেন, মিঠুন চাকমার হত্যাকারীরা পরিবারকে মামলা করতে বাধা দেয়ায় সংগঠনের পক্ষ থেকে মামলা দায়ের করতে চেয়েছিল। কিন্তু পুলিশ পরিবারের সদস্য ছাড়া অন্য কারো কাছ থেকে মামলা গ্রহণে অস্বীকৃতি জানিয়ে অজ্ঞাত আসামী দেখিয়ে তড়িঘড়ি করে মামলা করেছে। এতে প্রমাণ মিলে মিঠুন চাকমা হত্যাকারীরা কাদের মদদপুষ্ট।
সংবাদ সম্মেলনে ইউপিডিএফর ভ্রাতৃপ্রতীম সংগঠন গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক জিকো ত্রিপুরা, পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি বিনয়ন চাকমা ও হিল উইমেন্স ফেডারেশন কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি নিরূপা চাকমা উপস্থিত ছিলেন।
গত, ৩ জানুয়ারী খাগড়াছড়ি শহরে প্রতিপক্ষের গুলিতে খুন হন ইউপিডিএফ সংগঠক মিঠুন চাকমা। হত্যাকান্ডের চারদিন পর গত শনিবার রাতে খাগড়াছড়ি সদর থানার এসআই একেএম মিজানুর রহমান বাদি হয়ে ৭-৮ জনকে অজ্ঞাত আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।