খাগড়াছড়িতে ইউপিডিএফ’র সাথে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সংঘর্ষ : পুলিশসহ আহত ১৫

খাগড়াছড়ি সদরের স্বনির্ভর এলাকায় ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) প্রসিত সমর্থকদের সাথে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সংঘর্ষে পুলিশসহ আহত ১৫ হয়েছে।
আজ বুধবার সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে খবংপুড়িয়া এলাকায় শহীদ রুপক চাকমার ভাস্কয্যে ফুল দেয়া শেষে স্বনির্ভর বাজারে গিয়ে দলীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ করতে চাইলে ইউপিডিএফ নেতাকর্মীদের বাধা দেয় আইন শৃঙ্খলা বাহিনী। উভয় পক্ষের মধ্যে বাকবিতণ্ডার একপর্যায়ে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। ইউপিডিএফ নেতাকর্মীরা আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের লক্ষ্য করে গুলতি ও ইটপাটকেল নিক্ষেপ করলে পুলিশ ফাকা গুলি ছুড়ে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়।
ইউপিডিএফ নেতাকর্মীদের ছোড়া গুলতি ও পাটকেলে একজন এসআইসহ ৫ পুলিশ সদস্য আহত হয়। আহতরা হলেন, এসআই সাব্বীর হোসেন, সৈনিক সজীব বড়ুয়া, মোহাম্মদ আলী। আহতরা খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।
অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এমএম সালাহ উদ্দিন বলেন, স্বনির্ভর এলাকায় ইউপিডিএফ দুই গ্রুপের পূর্বঘোষিত পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি থাকায় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী টহল দিচ্ছিলো। এসময় লাঠিসোটা, গুলতি, ইট পাটকেল সহ ইউপিডিএফ’র কয়েকজন কর্মী আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ওপর অতর্কিতভাবে হামলা করে। এসময় ইউপিডিএফ কর্মীদের ছোড়া গুলতির আঘাতে ৫ পুলিশ সদস্য আহত হয়। পরে পুলিশ কয়েক রাউন্ড টিয়ারশেল ও শটগানের গুলি ছুড়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার চেষ্টা করে। তবে কত রাউন্ড গুলি ছুড়েছে তা এখনো হিসেব করা হয়নি।
ইউপিডিএফ সংগঠক মাইকেল চাকমা বলেন, পূর্ব নির্ধারিত কমসূচিতে পুলিশ ও সেনাবাহিনী লাঠিচাজ করে, এছাড়া পুলিশ টিয়ারগ্যাস ছুড়ে, এসময় ১০ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। স্বনির্ভর বাজারের অধিকাংশ দোকানপাট বন্ধ রয়েছে, পরিস্থিতি থমথমে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।