খাগড়াছড়িতে কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা’র পাশে বিশিষ্ট ব্যক্তিরা

খাগড়াছড়িতে কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা’র প্রতি সমর্থন ব্যক্ত করছেন বিশিষ্ট ব্যক্তিরা
খাগড়াছড়িতে আওয়ামীলীগ প্রার্থী ও এমপি কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা’র মেয়াদকালে জেলার শিক্ষা-সংস্কৃতি-তথ্যপ্রযুক্তি-সড়ক অবকাঠামো উন্নয়ন-কর্মসংস্থান সৃষ্টিসহ স্বাস্থ্য ও বিদ্যুৎ সুবিধা সম্প্রসারণের অনন্য ভূমিকার জন্য তাঁর প্রতি জোরালো সমর্থন ব্যক্ত করেছেন জেলার বিশিষ্ট ব্যক্তিরা।
আজ শনিবার সন্ধ্যায় জেলাশহরের ‘হিল ফ্লেভার্স’ নামের একটি সামাজিক সংগঠনের বার্ষিক পূর্নমিলনীতে শিক্ষক-চিকিৎসক-সমাজকর্মী-নারীনেত্রীসহ সমাজের প্রতিনিধিত্বশীল ব্যক্তিবর্গরা উপস্থিত ছিলেন। এরমধ্যে হিল ফ্লেভার্স-এর সভাপতি বিশ্বজিত চাকমা গুলো,অধ্যাপক নীলোৎপল খীসা, এড. আশুতোষ চাকমা, অধ্যাপক রত্ন কুসুম চাকমা, অধ্যাপক শ্যামলী চাকমা,সমাজকর্মী ধীমান খীসা, প্রধান শিক্ষক বিম্বিসার খীসা, প্রধান শিক্ষক নেপোলিয়ন চাকমা, তাতুমনি চাকমা, প্রধান শিক্ষক সুমনা চাকমাসহ অন্যান্যরা।
এসময় বক্তারা উল্লেখ করেন বর্তমান সরকারের সময়কালে খাগড়াছড়ির সবকটি উপজেলা সদরে ১টি করে হাইস্কুল ও কলেজ সরকারিকরণ হয়েছে। জেলার সবকটি বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় জাতীয়করণ হয়েছে। দুর্গম প্রত্যন্ত গ্রামেও বিদ্যুৎ, সুপেয় পানি এবং স্যানিটেশন ব্যবস্থার আমূল পরিবর্তন হয়েছে। কৃষি-ফলজ বাগান সৃষ্টি ও গবাদিপশু পালন প্রকল্পের মাধ্যমে তৃলমূল মানুষের জীবনমানের দ্রুত অগ্রগতি ঘটছে। পাহাড়ি-বাঙালি সম্প্রীতি ও আস্থা বৃদ্ধিতে এমপি কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা’র নেতৃত্ব এখানকার সব স্তরের মানুষকে কর্মমুখী করে তুলেছে। এই ধারাবাহিকতা রক্ষায় এমপি কুজেন্দ্র এর নেতৃত্ব অব্যাহত রাখা প্রয়োজন।
সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সংসদ সদস্য কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা বলেন, বাংলাদেশ বহু জাতি-ধর্ম-ভাষা ও সংস্কৃতির দেশ। এই দেশে জাতিগত সংখ্যালঘুদের প্রতি জাতির জনকের কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র উদার দৃষ্টিভঙ্গী রয়েছে। তাঁর দূরদর্শীতার কারণেই দুই যুগের সংঘাত বন্ধ করার প্রত্যয়ে ঐতিহাসিক পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তি সম্পাদন করেছেন। চুক্তি বাস্তবায়নের কিছুটা কাজ এখনো বাকী রয়েছে। জননেত্রী কথা দিয়েছেন, তিনি বাংলাদেশের অসাম্প্রদায়িক ঐতিহ্য অক্ষুন্ন রাখবেন এবং শান্তিচুক্তির পূর্ন বাস্তবায়ন করবেন।
তিনি আগামী ৩০ ডিসেম্বরের ভোটে জামাত-বিএনপি’র মুখোশপরা জোট ঐক্যফ্রন্ট-এর বিপরীতে মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের শক্তিকে নৌকা প্রতীকে জয়ী করার জন্য সবার কাছে ভোট প্রার্থনা জানান।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।