খাগড়াছড়িতে টানা বর্ষণে জনজীবনে দূর্ভোগ

খাগড়াছড়িতে টানা বর্ষণে জনজীবনে দূর্ভোগ তৈরী হয়েছে। গত তিন দিন ধরে বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকায় খাগড়াছড়ির শহরতলী ও বিভিন্ন উপজেলায় পাহাড় ধসের ঝুঁকি দেখা দিয়েছে। পাহাড় ধসে ঝুঁকি এড়াতে ইতোমধ্যে জেলা প্রশাসন ও পৌরসভার পক্ষ থেকে ঝুঁকিপূর্ণ এলাকায় বসবাসকারীদের সরে যেতে মাইকিং ও অভিযান চালাতে দেখা গেছে।
আজ সোমবার দুপুরে খাগড়াছড়ি সদরের শালবন এলাকায় পাহাড়ের পাদদেশে ঝুঁকিপূর্ণ ভাবে বসবাসকারীদের নিরাপদে সরিয়ে নিতে অভিযান চালায় জেলা প্রশাসক মো. শহিদুল ইসলাম।
দূর্যোগ মোকাবেলায় নয় উপজেলার সবক’টি আশ্রয়কেন্দ্র খোলা রাখতে স্থানীয় প্রশাসনকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া জরুরী প্রয়োজনে উদ্ধার কার্যক্রম পরিচালনায় প্রস্তুত রাখা হয়েছে উদ্ধারকারী দল। ভারী বর্ষণে পাহাড় থেকে নেমে আসা ঢলে খাগড়াছড়ির সাথে রাঙামাটির লংগদু উপজেলার সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে সোমবার দুপুর থেকে। পানি সরে না যাওয়া পর্যন্ত সড়ক যোগাযোগ স্বাভাবিক হবে না বলে জানিয়েছেন দীঘিনালা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কাশেম।
খাগড়াছড়ির জেলা প্রশাসক মো. শহিদুল ইসলাম জানান, খাগড়াছড়ির নয় উপজেলায় পাহাড় ধসের ঝুঁকিতে বসবাস করছে প্রায় ৮ শতাধিক পরিবার। প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাদের তালিকা করে পুনর্বাসনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এছাড়া পাহাড়ের পাদদেশে ঝুঁকি নিয়ে বসবাস করছে হাজারের অধিক পরিবার। ভারী বর্ষণে পাহাড় ধস কিংবা বন্যার সম্ভাবনা থাকায় তাদের সরিয়ে নিরাপদ আশ্রয়ে নিতেও প্রশাসনের প্রস্তুতি রয়েছে।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।