খাগড়াছড়িতে থ্রী হুইলার চালক খুনের ঘটনায় ৩ আসামী গ্রেফতার

খাগড়াছড়িতে থ্রী হুইলার চালক খুনের ঘটনায় ৩ আসামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার (৮ফেব্রুয়ারি) বিকেলে আদালতের মাধ্যমে আসামী মাসুম মিয়া, হামিদুল ইসলাম ও ফরিদ হোসেনকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। এর আগে,খাগড়াছড়ির জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. সামিউল আলমের আদালতে আসামীদের জবানবন্দি গ্রহণ করা হয়।

আসামীর জবানবন্দীর ভিত্তিতে পুলিশ জানায়, মাহেন্দ্র চোরচক্রের সদস্যরা গত ৩১ জানুয়ারী ও ১ ফেব্রুয়ারীর জন্য ফারুকের মাহেন্দ্রটি রিজার্ভ করে খাগড়াছড়ির বিভিন্ন পর্যটন কেন্দ্রে ঘুরে বেড়ায়। ঘটনার দিন (১ ফেব্রুয়ারী) সন্ধ্যায় আলুটিলা পর্যটন কেন্দ্র ঘুরে মানিকছড়ি নামিয়ে দিয়ে আসার কথা ছিল। মানিকছড়ি যাওয়ার পথে মাটিরাঙ্গার ১০ নম্বর এলাকায় প্রস্রাব করার কথা বলে মাহেন্দ্র থামানো হয়। মাহেন্দ্র থামানোর পর চোর চক্রের সদস্যরা ফারুককে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে মাহেন্দ্র নিয়ে পালিয়ে যায়। চুরিকৃত মাহেন্দ্রটি চট্টগ্রামের ইপিজেড এলাকার একটি গ্যারেজে ২ লক্ষ টাকায় বিক্রী করা হয়।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও মাটিরাঙ্গা থানার ওসি তদন্ত শাহনূর আলম জানান, তথ্য প্রযুক্তির সাহায্যে চট্টগ্রামের ইপিজেড ও রাঙ্গামাটির লংগদু তাকে আসামীদের গ্রেফতার করা হয়। আসামীদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৫ দিনের রিমাণ্ড আবেদন করা হয়েছে। থ্রী হুইলার ছিনতাইয়ের উদ্দেশে চালককে খুন করা হয় বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছে আসামীরা। ছিনতাই হওয়া থ্রী হুইলারটি উদ্ধার করা হয়েছে।

গত ১ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় মাটিরাঙ্গার ১০ নম্বর এলাকায় শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয় থ্রী হুইলার চালক মো. ফারুককে। ২ ফেব্রুয়ারী বিকেলে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় নিহতের ভাই বাদী হয়ে মাটিরাঙ্গা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে।

আরও পড়ুন
Loading...