খাগড়াছড়িতে পানিবন্দী হাজারও পরিবার

খাগড়াছড়ি শহরের অনেক এলাকা পানির নিচে
টানা বর্ষণে খাগড়াছড়িতে প্রাকৃতিক বিপর্যয় নেমে এসেছে। পাহাড়ী ঢলে গত সোমবার দুপুর থেকে খাগড়াছড়ি সদর, মহালছড়ি, দীঘিনালা উপজেলার ১৫-২০টি গ্রামে হাজারও পরিবার পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। রাতে খাগড়াছড়ি শহরের শালবন, দীঘিনালা ও মহালছড়ি উপজেলার বেশকিছু জায়গায় ভূমি ধসের ঘটনা ঘটেছে। খাগড়াছড়ি, দীঘিনালার মেরুং বাজার ও বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে বন্যার পানি ঢুকে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।
গতরাত থেকে বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন খাগড়াছড়ি জেলা। স্থানীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও উচু স্থানে আশ্রয় নিয়েছেন বন্যাদূর্গতরা। খাগড়াছড়িতে পাহাড়ের পাদদেশে ঝুঁকিপূর্ণ বসবাসকারীদের সরে যেতে স্থানীয় প্রশাসন ও পৌরসভার পক্ষ থেকে সর্তকতা জারি করা হয়েছে।
মঙ্গলবার দুপুরে খাগড়াছড়ি সদরের বিভিন্ন এলাকার বন্যা দূর্গতদের খোঁজখবর নেন খাগড়াছড়ি আসনের সংসদ সদস্য কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা, জেলা প্রশাসক মো: রাশেদুল ইসলাম, পুলিশ সুপার আলী আহমদ ও পৌর মেয়র রফিকুল আলম।
বৃষ্টি অব্যাহত থাকায় চেঙ্গী, মাইনী ও ফেণী নদীর পানি আরও বৃদ্ধি পেয়ে দূর্ভোগ বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে মৎস খামারসহ কৃষি জমির ফসল। ২০০৭ সালের পর আবারও ভয়াবহ প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের সম্মুখনী হয়েছে খাগড়াছড়িবাসী।

আরও পড়ুন
1 মন্তব্য
  1. Sing Mong Chowdhury বলেছেন

    Poly Chowdhury ki obostha dekho

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।