খাগড়াছড়িতে পাহাড়ের পাদদেশে বসবাসকারীদের সরে যেতে মাইকিং

purabi burmese market

খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার বিভিন্ন স্থানে ঝুঁকিপূর্ণভাবে পাহাড়ের পাদদেশে বসবাসকারীদের নিরাপদ আশ্রয়ে সরে যেতে মাইকিং শুরু করেছে জেলা প্রশাসন। মঙ্গলবার বিকেল থেকে জেলা সদরসহ উপজেলাগুলোতে মাইকিং শুরু করে জেলা তথ্য অফিস ও স্থানীয় প্রশাসন।
লঘুচাপের প্রভাবে গত ১১ জুন থেকে সারাদেশের ন্যায় খাগড়াছড়ি জেলার ওপর দিয়ে ভারি বর্ষণ ও ঝড়ো বাতাস বয়ে যাচ্ছে। এতে করে পাহাড় ধসের শঙ্কা দেখা দিয়েছে। পাহাড়ের পাদদেশে বসবাসকারী ও পথচারীদের নিরাপদ আশ্রয় ও চলাচলে সর্তক থাকতে প্রশাসন মাইকিং করছে।
খাগড়াছড়ির জেলা প্রশাসক মো: রাশেদুল ইসলাম জানান, ঝুঁকিপূর্ণ ভাবে পাহাড়ের পাদদেশে বসবাসকারীদের সরে যেতে তথ্য অফিসের সহায়তা চেয়ে মাইকিং করা হচ্ছে। ঝুঁকিপূর্ণ এলাকাগুলোতে আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হয়েছে। যেকোন প্রকার দূর্যোগ মোকাবেলায় জেলা প্রশাসন প্রস্তুত রয়েছে।
উল্লেখ্য, পাহাড়ের ঢালু কেটে সমতল করে বসবাস এবং বনাঞ্চল উজাড় করায় প্রতিবছর ভারিবর্ষণে খাগড়াছড়ির শহরের কুমিল্লাটিলা, ইসলামপুর, শালবন, সবুজবাগ, খাগড়াপুর এবং মাটিরাঙা, মানিকছড়ি, পানছড়ি, দীঘিনালা, রামগড়, মহালছড়ি উপজেলার বিভিন্ন স্থানে পাহাড় ধস হয়ে ক্ষয়ক্ষতির ঘটনা ঘটছে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।