খাগড়াছড়িতে পিতা পুত্র হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় গ্রেপ্তার ২

খাগড়াছড়ি জেলা সদরের নুনছড়ি গ্রামে পিতা পুত্র হত্যাকাণ্ডের এজহারভুক্ত দুই আসামীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শুক্রবার বিকেলে আদালতের মাধ্যমে গ্রেপ্তারকৃতদের জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতরা হলো, নুনছড়ির থলিপাড়া গ্রামের মুকুন্দ ত্রিপুরার ছেলে কলক্ষা ত্রিপুরা(৪০) ও খগেশ্বর ত্রিপুরা(২০)।
শুক্রবার বিকেলে খাগড়াছড়ির অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রোকেয়া আক্তারের আদালতে গ্রেপ্তারকৃতরা ১৬৪ ধারায় হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িতদের থাকার বিষয়ে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন খাগড়াছড়ি সদর থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) তারেক মোহাম্মদ আব্দুল হান্নান।
তিনি জানান, গ্রেপ্তারকৃত দুই ভাই হত্যাকাণ্ডে পরোক্ষ ভাবে অংশগ্রহণ করেছিল মর্মে শুক্রবার বিকেলে অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে স্বীকারোক্তি জবানবন্দী দিয়েছে। পরে আদালত তাদের কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন। এর আগে পিতা পুত্র হত্যা মামলা এজহারভুক্ত দুই আসামীকে বৃহস্পতিবার দুপুরে খাগড়াছড়ির নুনছড়ি থলিপাড়া এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। শুক্রবার দুপুরে জবানবন্দীর জন্য তাদের আদালতে হাজির করা হয়েছিল।
প্রসঙ্গত, গত ১১ মে পূর্ব শত্রæতার জেরে খাগড়াছড়ি সদরের নুনছড়ি থলিপাড়া এলাকার চিরঞ্জিৎ ত্রিপুরা (৫৫) ও তার ছেলে কর্ণ ত্রিপুরা(৩০) কে হত্যা করে এলাকায় ইউপি সদস্য কালি বন্ধু ত্রিপুরার সন্ত্রাসীরা। হামলায় চিরঞ্জিতের স্ত্রী ভবেলক্ষী(৪৫) ও কর্ণ ত্রিপুরা স্ত্রী বিজলী ত্রিপুরা(২৮) গুরুত্বর আহত হয়। এঘটনায় নিহত চিরঞ্জিৎ ত্রিপুরা ছেলে নিহার কান্তি ত্রিপুরা খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের ২ সদস্যসহ ৩৪ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাত ১০-১২ জনকে আসামী করে হত্যা মামলা দায়ের করেন। এই মামলায় ৯ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে ৪ জনই হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দী দিয়েছে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।