খাগড়াছড়িতে স্কুলছাত্রের আত্মহত্যার চেষ্টা !

%e0%a6%86%e0%a6%a4%e0%a7%8d%e0%a6%ae%e0%a6%b9%e0%a6%a4%e0%a7%8d%e0%a6%af%e0%a6%be%e0%a6%b0-%e0%a6%9a%e0%a7%87%e0%a6%b7%e0%a7%8d%e0%a6%9f%e0%a6%beএসএসসি পরীক্ষার ফরম পুরণ করতে না পেরে খাগড়াছড়ির লক্ষীছড়িতে ফারুক হোসেন (১৫) নামে এক স্কুল ছাত্র আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে। অন্যদিকে একই কারণে তার দুই সহপাঠির নিরুদ্দেশ রয়েছে। আত্মহত্যার চেষ্টাকারী ছাত্র মো: ফারুক হোসেন লক্ষীছড়ি গুচ্ছগ্রামের এলাকার মো: আবদুল মান্নানের ছেলে।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, মো: ফারুক হোসেন এবং তার দুই সহপাঠি চলতি বছরে টেষ্ট পরীক্ষায় পাঁচ বিষয় ফেল করায় স্কুল কর্তৃপক্ষ পরীক্ষার ফরম পুরনের সুযোগ দেয়নি। তাই মো: ফারুক হোসেন হতাশাগ্রস্থ হয়ে ঘুমের ট্যাবলেট খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা চালায় এবং তার দুই সহপাঠী গেল দুইদিন ধরে নিরুদ্দেশ অবস্থায় আছে।

এদিকে লক্ষীছড়ি হাসপাতালে কর্তব্যরত চিকিৎসক সুমন কল্যাণ চৌধুরী ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, মো: ফারুক হোসেন নামের এক স্কুলছাত্রকে মেয়াদত্তীর্ণ কীটনাশক এবং ঘুমের ট্যাবলেট খাওয়ার পর অচেতন অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। তার অবস্থা তেমন ভালো নয়।

তবে আত্মহত্যার চেষ্ঠাকারী ছাত্র মো: ফারুক হোসেনের পিতার অভিযোগ বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের অতিরিক্ত অর্থের দাবী মেটাতে না পারায় বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আমার সন্তানসহ বেশ কয়েকজনকে পরীক্ষার ফরম পূরনের সুযোগ দেয়নি।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে লক্ষীছড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: আবু বকর সিদ্দিক অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির অনুমতি ছাড়া এখন আমার কিছুই করার নেই।

বিদ্যালয়ের ষাট জন শিক্ষার্থীদের মধ্যে মাত্র তিনজন শিক্ষার্থী সব বিষয় পাশ করেছে দাবী করে স্থানীয় এলাকাবাসী এবং ফরম পুরনের সুযোগ না পাওয়া ছাত্রছাত্রীর অভিবাবকরা বলেন, যেখানে অকৃতকার্য অন্যদের ফরম পূরনের সুযোগ দেয়া হয়েছে সেখানে আমাদের সন্তানদের কেন সেই সুযোগ থেকে বঞ্চিত করা হবে।

আরও পড়ুন
Loading...