খাগড়াছড়িতে স্বামীর পুরুষাঙ্গ কেটে দিয়েছে স্ত্রী !

খাগড়াছড়ির মানিকছড়ি উপজেলার গচ্ছাবিল এলাকার মো. দেলোয়ার হোসেন (৫০) এর পুরুষাঙ্গ কেটে দিয়েছে তার দ্বিতীয় স্ত্রী জোসনা বেগম (৪০)। আজ রবিবার (২৬ ডিসেম্বর) দিবাগত গভীর রাতে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, স্বামী দেলোয়ার হোসেন ও স্ত্রী জোসনা বেগমের সংসারে এক পুত্র সন্তানের পাশাপাশি চার কন্যা সন্তানও রয়েছে। তাছাড়া স্বামী একাধিক বিবাহ করার কারণে তার দ্বিতীয় স্ত্রী জোসেনা বেগমের সঙ্গে প্রায়ই ঝগড়া হওয়ার পাশাপাশি স্বামীর হাতে স্ত্রী শারীরিকভাবে নির্যাতনের স্বীকারও হয়েছেন একাধিকবার। এছাড়াও নতুন করে আরও একটি বিবাহের খবর পান জোসনা বেগম এবং তাকে ঘরে আনার পরিকল্পনা করছিলেন তার স্বামী দেলোয়ার হোসেন। তবে স্ত্রী জোসনা বেগম কোনে ভাবেই ঐ স্ত্রীকে মেনে নিতে পারছিলেন না। এ নিয়ে তাদের মধ্যে কথাকাটি হয়। গতকাল রাতে দ্বিতীয় স্ত্রী জোসনা বেগমের সঙ্গে রাত্রীযাপন করছিলেন স্বামী দেলোয়ার হোসেন। এক পর্যায়ে ঘুমন্ত অবস্থায় গভীর রাতে ধাড়ালো ব্লেড দিয়ে স্বামীর গোপনাঙ্গ কেটে ফেলেন স্ত্রী জোসনা বেগম। পরে দেলোয়ারের আত্মচিৎকারে পরিবারের লোকজন তাকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে মানিকছড়ি মেডিকেলে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে প্রেরণ করেন। তবে তার স্বামী দেলোয়ার হোসেন কয়টি বিবাহ করেছে সেটির ব্যাপারে সঠিক কোনো তথ্য স্থানীয় কিংবা পুলিশের কাছ থেকে জানা যায়নি।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. মোসারফ হোসেন জানান, জোসনা বেগম দেলোয়ার হোসেন প্রথম স্ত্রী, কিন্তু কেউ কেউ বলছেন দ্বিতীয় স্ত্রী। ইদানিং আরও একটি বিবাহ করেছে বলে তিনি জেনেছেন। তাবে মূলত কয়টি বিবাহ তিনি করেছেন তার সঠিক উত্তর এই ইউপি সদস্যদেরও জানা নেই। তবে পারিবারিক কলোহের জেরে এমনটি হয়েছে বলে তার ধারণা।

মানিকছড়ি থানার এসআই আক্কাস আলী জানান, খবর পেয়ে মানিকছড়ি থানা পুলিশ স্বামীর গোপনাঙ্গ কর্তনকারী ঐ স্ত্রী জোসনা বেগমকে আটক করে মানিকছড়ি থানায় নিয়ে আসে এবং তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এছাড়াও তার বিরুদ্ধে মামলা প্রক্রিয়াধীণ বলেও তিনি জানিয়েছেন।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।