খাগড়াছড়িতে ৪০ টন গাঁজা ক্ষেত ধ্বংস করেছে সেনাবাহিনী

খাগড়াছড়িতে ১২ দিনের ব্যবধানে আবারও ৩৫ টি গাঁজা ক্ষেতের সন্ধান পেয়েছে সেনাবাহিনী।

বৃহস্পতিবার (২ জানুয়ারি) সকালে মাটিরাঙ্গা উপজেলার ধল্যাছড়া পাড়া এলাকায় মহালছড়ি সেনা জোন অধিনায়ক লে. কর্ণেল মেহেদী হাসানের নেতৃত্বে গাঁজা ক্ষেত ধ্বংস অভিযান শুরু হয়।

লে. কর্ণেল মেহেদী হাসান বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামের আঞ্চলিক সংগঠনগুলো নিজেদের অস্ত্র ক্রয় ও সাংগঠনিক খরচ মেটানোর জন্য নতুন কৌশল হিসেবে মাদক চাষ শুরু করেছে। দূর্গম এলাকায় সাধারণ মানুষদের ভয়ভীতি প্রদর্শন করে এসব চাষ করানো হচ্ছে। সেনাবাহিনীর নিয়মিত টহল দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গাঁজা ক্ষেতের সন্ধান পায়। ৩৫ টি ক্ষেতে ৪০ টনের মতো গাঁজা উৎপাদন হয়েছে। যার আনুমানিক বাজারমূল্য একশ কোটি টাকার বেশী। বৃহস্পতিবার থেকে আগামী ৩ দিন ধরে গাঁজা ক্ষেত ধ্বংসের পাশাপাশি আশপাশের এলাকায় ড্রোন ও পেট্রলিং করে আরও অনুসন্ধান চলবে বলে জানান মহালছড়ি সেনা জোনের অধিনায়ক।

গাঁজা ক্ষেত ধ্বংস অভিযানে সেনাবাহিনী ছাড়াও পুলিশ, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন। অভিযান চলাকালে ধল্যাছড়া গ্রামের ২৪ টি বসত বাড়ি জনমানব শুন্য হয়ে পড়ে।

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালের ২২ ডিসেম্বর মহালছড়ির কলাবুনিয়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে ১৭ শ গাঁজা গাছ ধ্বংস করে মহালছড়ি সেনা জোন। ওইসময় গাঁজা চাষের দায়ে ২ জনকে আটক করে পুলিশে দেয় সেনাবাহিনী।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।