খাগড়াছড়িতে ৪ সশস্ত্র সন্ত্রাসীকে গণধোলাই দিল গ্রামবাসী

খাগড়াছড়িতে ৪ সশস্ত্র সন্ত্রাসীকে গণধোলাই দিল গ্রামবাসী
খাগড়াছড়ি সদরের পুনর্বাসন এলাকায় চার ইউপিডিএফ সশস্ত্র সন্ত্রাসীকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছেন বিক্ষুদ্ধ গ্রামবাসী। শনিবার বিকেল ৪টার দিকে জেলা সদরের ওচাই পাড়া এলাকার একটি বাড়ি থেকে গ্রামবাসী তাদের ধরে গণধোলাই দেয়। সন্ধ্যায় পুলিশ খবর পেয়ে আহতবস্থায় সন্ত্রাসীদের আটক করে খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠায়। আটককৃতরা হলো, মিশন ত্রিপুরা, রূপক বড়ুয়া, রবি জয় চাকমা ও অনুপম চাকমা। এসময় তাদের কাছ থেকে দুইটি দেশীয় তৈরী পিস্তল, ১৪ রাউন্ড তাজা গুলি, নগদ অর্থসহ বিভিন্ন নথিপত্র উদ্ধার করা হয়।
পুনর্বাসন গ্রামের বাসিন্দা বাবুল বিকাশ ত্রিপুরা বলেন, দীর্ঘদিন ধরে ইউপিডিএফর সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা পুনর্বাসন ও আশপাশের এলাকাবাসীদের অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে চাঁদা আদায় করছে। শনিবার সকালে ওচাই পাড়া এলাকায় কাজ করতে যান খোকন ত্রিপুরা ও আশিক ত্রিপুরা। এসময় ইউপিডিএফর সন্ত্রাসীরা তাদের কাছ থেকে দাবিকৃত চাঁদা পরিশোধ না করায় মারধর করে। এই খবর গ্রামে ছড়িয়ে পড়লে বিকেলে গ্রামবাসী ক্ষিপ্ত হয়ে সন্ত্রাসীদের আস্তানায় গিয়ে ধাওয়া করে। এসময় জনতার হাতে চারজন ধরা পড়ে। তাদের পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে। অপরদিকে, ইউপিডিএফর মুখপাত্র নিরন চাকমা এমন কোন ঘটনা শোনেননি বলে জানান।
খাগড়াছড়ি সদর থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) তারেক মোহাম্মদ আব্দুল হান্নান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আটককৃত খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের প্রস্তুতি চলছে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।