খাগড়াছড়ি ছাত্রদলের ৫ সদস্যের কমিটি : সভাপতি রেস্টুরেন্ট ব্যবসায়ী, সাধারণ সম্পাদক বিবাহিত

খাগড়াছড়ি ছাত্রদলের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক
মেয়াদ উত্তীর্নের চার বছর পর খাগড়াছড়ি জেলা ছাত্র দলের মাত্র পাঁচ সদস্যের একটি কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। মনোনীত এই কমিটির সভাপতি পদে রয়েছেন মো: শাহেদুল হোসেন সুমন। তিনি পেশায় একজন রেস্টুরেন্ট ব্যবসায়ী। পানছড়ি উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি বেলাল হোসেন মেম্বার তার বাবা। আর সা: সম্পাদক পদের মো: জাহেদুল আলম বিবাহিত। তিনি উন্মুক্ত বিশ^বিদ্যালয়ে পড়েন বলে জানা গেছে।
সিনিয়র সহ-সভাপতি নুরশাদ হোসেন রনি, প্রয়াত বিএনপি নেতা বেলাল হোসেন প্রকাশ বই বেলালের সন্তান। মনোনীত যুগ্ম-সম্পাদক আবুল কাশেম রাসেল, আনিছুর রহমান অনিক এবং সাংগঠনিক সম্পাদক একরাম হোসেন রানা; তিনজনই খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজে অধ্যয়নরত।
এরমধ্যে অনিক ও রানা, কলেজ কমিটির সভাপতি ও সা: সম্পাদকের দায়িত্বে রয়েছেন। কেন্দ্রীয় ছাত্র দলের সভাপতি মামুনুর রশিদ মামুন এবং সা: সম্পাদক মোহাম্মদ আকরামুল হাসান’র স্বাক্ষরে অনুমোদিত সদ্য ঘোষিত কমিটির সভাপতি সুমন নিজেকে চট্টগ্রাম বিশ^দ্যিালয়ে নৈশ শাখায় এমবিএ অষ্টম ব্যাচের শেষ বষের শিক্ষার্থী বলে জানিয়েছেন।
সরেজমিনে জানা গেছে, তিনি বেশ কয়েক বছর ধরেই খাগড়াছড়িতে তাঁর বাবার ঠিকাদারী ব্যবসা পরিচালনার পাশাপাশি জেলাশহরের নারিকেল বাগান এলাকায় ‘এফএনএফ’ নামে একটি রেস্টুরেন্ট চালান। ছাত্রদলের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী প্রতি তিন বছর পর পর ৮১ সদস্য বিশিষ্ঠ জেলা কমিটি গঠন করা কথা থাকলেও ২০১৪ সাল থেকেই ‘কামাল-খলিল’ কমিটি মেয়াদ উত্তীর্ন হয়ে যায়।
জেলা ছাত্রদলের সাধারণ নেতাকর্মীদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, সদ্য ঘোষিত কমিটির গুরুত্বপূর্ন পাঁচ পদে যাদের নাম এসেছে, তাঁরা অতীতের যেকোন কমিটির চেয়ে ভাল ইমেজের।
তাঁরা অভিযোগ করেন, গত কমিটির সভাপতি কামাল উদ্দীন দীপ্ত ২০১০ সালে ছাত্রত্বহীন এবং বিবাহিত অবস্থায় কমিটিতে স্থান পেয়েছিলেন। চট্টগ্রাম শহরের প্রতিষ্ঠিত এই ঠিকাদার ২০১৪ সালের আগ থেকেই খাগড়াছড়ির রাজনীতিতে অনুপস্থিত। তিনি কমিটিতে আসার আগে থেকেই সপরিবারে চট্টগ্রাম শহরের বাসিন্দা ছিলেন।
অভিযোগ করেন, সেই কমিটির সা: সম্পাদক ইব্রাহিম খলিল সম্পর্কেও। মাঠে সক্রিয় থাকলেও তিনি সরকারি দলের সাথে সখ্যতার মাধ্যমে কোটি টাকার ঠিকাদারী ব্যবসা নিয়ে ব্যস্ত থাকেন বেশিরভাগ। আর দলীয় কর্মসূচিতে টাকা খরচ করে সবার মুখ বন্ধ রাখেন।
নতুন কমিটির সভাপতি শাহেদুল হাসান সুমন এক প্রতিক্রিয়ায় বলেন, জেলা বিএনপি’র সভাপতি ওয়াদদুদ ভূঁইয়া’র পরামর্শে কেন্দ্র এবং সক্রিয় নেতাকর্মীদের সাথে সমন্বয় করে জেলায় বসবাসরত সব সম্প্রদায়ের অংশগ্রহণের মাধ্যমে শিগগির পূর্নাঙ্গ কমিটি গঠন করা হবে।
তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, চলমান সরকার বিরোধী আন্দোলন এবং বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ায় মুক্তি আন্দোলনেও এই কমিটি ভালো ভূমিকা রাখবে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।