গুজবে পাহাড়ের স্কুলগুলোতে শিক্ষার্থী সংকট !

ছেলেধরা ও রক্ত নেওয়া গুজবে শিক্ষার্থী সংকটে পড়তে যাচ্ছে পাহাড়ের স্কুলগুলো। ইতিমধ্যে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থী উপস্থিতি প্রতিদিনই কমে আসছে। নিত্য নতুন গুজবে আতঙ্কে অভিভাবকরা।
আজ বৃহস্পতিবার (২৫জুলাই) সকালে রাঙ্গামাটি জেলা উন্নয়ন কমিটির সভায় এমন তথ্যই উঠেছে এসেছে সংশ্লিষ্টদের বক্তব্যে।
সভায় সভাপতির বক্তব্যে রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বলেন, ছেলেধরা ও রক্ত নেওয়া আতঙ্কে ইতিমধ্যে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থী উপস্থিতি কমে গেছে। স্কুল ছুটির পর শিক্ষার্থীদের অভিভাবকের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠান ত্যাগের বিষয়টি শিক্ষক ও সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা ও কর্মচারী কর্তৃক নিশ্চিতকরণের জন্য ইতিমধ্যে পরিষদ হতে মৌখিকভাবে নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে।
তিনি বলেন, পদ্মা সেতুতে শিশুর কাটা মাথা ও রক্ত লাগবে, এমন ইস্যুকে কেন্দ্র করে দেশের বিভিন্ন স্থানে ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনির মাধ্যমে একটি কুচক্রী মহল দেশে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টির পায়তারা করছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও বিভিন্ন এলাকায় যাতে এ ধরনের পরিস্থিতি সৃষ্টি না হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখার জন্য প্রতিষ্ঠান প্রধান, এলাকার জনপ্রতিনিধি, স্থানীয় প্রশাসন, সুধী সমাজ, সকলের প্রতি আহŸান জানান চেয়ারম্যান। তিনি বলেন, গণপিটুনি দিয়ে হত্যা এবং গুজব ছড়িয়ে দেশে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি করা একটি অপরাধ। আইন নিজের হাতে না নিয়ে সন্দেহভাজন ব্যক্তিকে আইনশৃংখলা বাহিনীর হাতে সোপর্দ করার পরামর্শ দেন তিনি।
পরিষদের মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা ছাদেক আহমদের পরিচালনায় রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত সভায় পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য সাথোয়াই প্রু মারমা, রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসনের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা আইসিটি) শারমিন আলম, রাঙ্গামাটি পুলিশ বিভাগের সহকারী পুলিশ সুপার রনজিত কুমার পালিত’সহ জেলা ও উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন
Loading...