ঘরের দুয়ারে জেলা প্রশাসককে দেখে হতবাক ওরা !

ডি‌সি স্যার অনেক বড় মানুষ,সরকা‌রি নানা কাজে ব্যস্ত থাকনে আর আমরা খে‌টে খাওয়া নিম্ন আয়ের মানুষ। কল্পনাতেও আসেনি এত বড় মান‌ুষ খাবার সামগ্রী নিয়ে একেবারে আমাদের ঘরের দুয়ারে এসে দাঁড়াবেন!

করোনা প্রাদুর্ভাবে সরকা‌রি সিদ্ধান্তে ‌রোজগার‌বিহীন ঘরে আবদ্ধ নিম্ন আয়ের খে‌টে খাওয়া মানুষদের ঘরে ঘরে জেলার ডি‌সি এ কে এম মামুনুর র‌শিদ নি‌জ হাতে ত্রান পৌ‌ছে দিচ্ছেন দেখে হতবাক হয়ে এমন মন্তব্য করেছেন রাঙামাটি জেলার সাধারন মানুষ।

সম্প্র‌তি রাঙামা‌টি পৌরসভায় কাঠালতলী এলাকায় জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিম্ন আয়ের মানুষের মাঝে ত্রান বিতরন করেন জেলা প্রশাসক এ কে এম মামুনুর র‌শিদ। এসময় জেলা প্রশাসনের এন‌ডি‌সি উত্তম কুমার দাশ,প্যানেল মেয়র জামাল উ‌দ্দিন উপ‌স্থিত ছিলেন।

‌ডি‌সি বলেন, করোনায় নিন্ম আয়ের মানুষের ইনকাম নেই বললেই চলে। এদিকে করোনার প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে সবাইবে নিজ নিজ ঘরে অবস্থান করাটাও জরুরী। তাই এসব নিম্ন আয়ের মানুষ যাতে কোন অসু‌বিধায় না পড়ে সে লক্ষ্যে সরকার বি‌ভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহন করেছে। তারই অংশ হি‌সে‌বে ত্রান ও দু‌র্যোগ মন্ত্রনালয় হতে প্রাপ্ত ১০০ মেঃ ও ১০ লক্ষ টাকা জেলাধীন উপজেলা ও পৌরসভার মাধ্য‌মে বিতর‌ণের ব্যবস্থা নিয়েছি। সং‌শ্লিস্ট উপ‌জেলার নির্বাহী অ‌ফিসার ও পৌরসভার জনপ্র‌তি‌নি‌ধি‌দের মাধ্যমে দ‌রিদ্র ও খে‌টেখাওয়া মানুষদের মাঝে ১০ কে‌জি চাল, আলু, লবন, তেল,ডাল ও শিশু খাদ্য বিতরন করা হচ্ছে।

এদিকে করোনায় রোজগার বন্ধ নিম্ন আয়ের মানুষজন এসব ত্রান পেয়ে ভীষন খু‌শি। তারা জানান, এই সংকটময় মুহু‌র্তে এসব খাদ্য সামগ্রী আমাদের জন্য নেয়ামত স্বরুপ। তারা ক‌রোনা সংকট মোকা‌বেলায় সরকা‌রের পাশে আছে বলে জানিয়েছে।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।