চবিতে ‘বান্দরবান স্টুডেন্ট’স এসোসিয়েশন’ এর সভাপতি পুলু মারমা, সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন মানিক

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) তে “বান্দরবান স্টুডেন্ট’স এসোসিয়েশন” এর নতুন কার্যনির্বাহী কমিটি
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) তে “বান্দরবান স্টুডেন্ট’স এসোসিয়েশন” এর কার্যনির্বাহী কমিটি (২০১৭-১৮) ঘোষণা করা হয়ছে। এতে সভাপতি হয়েছেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড বায়োটেকনোলজি বিভাগের শিক্ষার্থী পুলু মারমা এবং সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনা বিভাগের শিক্ষার্থী মোঃ সাদ্দাম হোসেন মানিক।
বৃহস্পতিবার বান্দরবান স্টুডেন্ট’স এসোসিয়েশন এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ইমতিয়াজুর রহমান সংগঠনের গঠনতন্ত্রের ৭ নং ধারা অনুযায়ী ৫৯ সদস্য বিশিষ্ট এই আংশিক কমিটির অনুমোদন দেন। এসোসিয়েশন সূত্রে জানা গেছে, ৫৯ সদস্য বিশিষ্ট এ আংশিক কমিটিতে সহ-সভাপতি মনোনীত হয়েছেনঃ মোহাম্মদ মারজান আলী, সুজন দাশ, ইখতিয়ার ইমন, আবদুল্লাহ মোহাম্মদ সা’দ, মোঃ মুমিনুল ইসলাম সোহেল, মোঃ হানিফ উর রহমান, হ্লামেচিং মারমা, মিলন মারমা, চ সিং মং মারমা (চ সিং) এবং অন্তরা তঞ্চঙ্গ্যা। যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মনোনীত হয়েছেনঃ উমং প্রু মার্মা কিম, আবরার শাহরিয়ার, আসআদ বিন জাকারিয়া, থোয়াই থিন অং মার্মা, মিনা প্রভা দে, শিউলি বড়ুয়া, মোঃ জামাল উদ্দীন জিশান, মোহাম্মদ মেহেদী মাহতাব সিদ্দিকী এবং রেমরি বম।
সাংগঠনিক সম্পাদক মনোনিত হয়েছে, আমান উল্লাহ আমান, ডসিংউ মীরাপ্রু মার্মা, মোতাহার হোসেন ভূঁইয়া ডিউক, আব্দুল ওহাব সানি, জয় সিংহ, হ্লা মে অং মারমা, ইয়াছিন আরফাত কায়ছার এবং উক্যএ মার্মা ইমু। এছাড়াও বিভিন্ন সম্পাদকীয় পদে ৩০ জন শিক্ষার্থী মনোনয়ন পেয়েছেন। কমিটি গঠনে যোগ্যদের অগ্রাধিকার দেওয়া হয়েছে জানিয়ে এসোসিয়েশনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ইমতিয়াজুর রহমান বলেন, সংগঠনটি চবিতে অধ্যয়নরত বান্দরবান জেলার সকল শিক্ষার্থীদের একটি অরাজনৈতিক ছাত্রকল্যাণমূলক সংগঠন।
বান্দরবানের ৭টি উপজেলা থেকে আগত যে সকল শিক্ষার্থী চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশুনা করেন, তাদের জন্যই আমাদের এ এসোসিয়েশন। এর মাধ্যমে আমরা তাদের সুখে-দুঃখে পাশে দাঁড়াতে চাই। বান্দরবান স্টুডেন্ট’স এসোসিয়েশন এর নতুন কমিটি গঠনে যারা যোগ্য এবং এসোসিয়েশনের জন্য কাজ করেছেন আমরা তাদেরকে অগ্রাধিকার দিয়েছি। শিক্ষা ও সম্প্রিতীর চেতনাকে ধারণ করে সংগঠনের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যকে সমুন্নত রেখে সবাই সংগঠনের বিধি-বিধান ও নিয়ম-কানুন যথাযথভাবে মেনে চলবে, এটাই প্রত্যাশা। সম্প্রিতী বিনষ্টকারী এবং সংগঠনের শৃঙ্খলা ভঙ্গকারী কারো এসোসিয়েশনের সাথে থাকার কোন অধিকার নেই।”

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।