চাঁদাবাজি, সন্ত্রাস, রক্তপাতে আমরা আর ধৈর্য্য ধরবোনা : বীর বাহাদুর

চাঁদাবাজি, সন্ত্রাস, রক্তপাতে আমরা আর ধৈর্য্য ধরবো না। এ সরকার জনবান্ধব সরকার, জনগণের সরকার, সুতরাং আগামী দিনগুলোতে জনগণের জানমাল রক্ষা করতে যা যা করার দরকার, সরকার করবে এটাই আমরা আশা করি। আজ বৃহস্পতিবার (১৭ অক্টোবর) দুপুরে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের আয়োজনে ও রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় রাঙ্গামাটি ক্ষুদ্র নৃ গোষ্ঠী সম্মেলন কক্ষে তিন জেলার আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক সভায় সভাপতির বক্তব্যে পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, পার্বত্য অঞ্চলে কয়েক বছর ধরে অশান্ত পরিবেশ বিরাজ করছিল, আমি তিন জেলার যেখানে যাই, সকলেই এই সমস্যাগুলো বারবার বলছিল। আমার ভাবনা ছিল মাননীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে কথা বলবো এবং উনাকে নিয়ে এসে আমাদের স্থানীয় জনপ্রতিনিধি থেকে শুরু করে সকলস্তরে যারা আছেন তাদের মুখ থেকে সবকিছু সরাসরি শুনুক। উনি এসেছেন, শুনেছেন এখানে কি হচ্ছে এবং অনুধাবন করেছেন। আমি পার্বত্যবাসীর পক্ষ থেকে উনাকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

তিনি আরো বলেন, আমাদের মুল কথা হচ্ছে, আমরা শান্তি চাই। দল মত নির্বিশেষে সকলেই সন্ত্রাসীদের বিপক্ষে এবং প্রধানমন্ত্রীর উপর এখানকার জনগণের আস্থা আছে। আস্থা আছে বলেই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে শান্তি, উন্নয়নের জন্য প্রধানমন্ত্রী শাস্তি চুক্তি করেছেন। তাই শান্তি চুক্তি যারাই করেছি, সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে সমস্যা সমাধানে এগিয়ে যেতে হবে। সমস্যা থাকবেই, পাশাপাশি সমাধানের পথ আমাদের আছে। সংলাপ করা, আলোচনা করা, বিষয়টি নিয়ে দেনদরবারের অনেক পথ খোলা আছে। কিন্তু শান্তি চুক্তির কোন জায়গাতে লেখা নাই, চুক্তি বাস্তবায়নে বিলম্ব হলে খুন করা যাবে, সন্ত্রাস করা যাবে, কিডন্যাপ করা যাবে। কেন এটা করবো?

তিনি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রশংসা করে বলেন, শুধু দেশে কেন আন্তর্জাতিক পর্যায়েও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী নিয়ে গর্ব করতে পারি। সুতরাং এ অঞ্চলে গুটি কয়েক মানুষের জন্য শান্তি বিঘ্নিত হবে এটা কাম্য নয়। তাই আইনশৃঙ্খলা বাহিনীসহ সকলে মিলে এ অঞ্চলের চাঁদাবাজ, সন্ত্রাসীর শেকড় উৎপাটন করবো, এখান থেকে তাড়াবো।

তিনি বলেন, সৃষ্টির শ্রেষ্ঠ জীব হচ্ছে মানুষ। সেই সৃষ্টির শ্রেষ্ঠ জীবের খুন হত্যা আশা করতে পারি না। আমরা আমাদের আর কোন আপনজনকে হারাতে চাই না। সুতরাং সরকার এসব সন্ত্রাসীর বিরুদ্ধে যা পদক্ষেপ নিবেন আমরা সরকারের পাশে থাকব।

সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মোঃ আসাদুজ্জামান কামাল। সভায় অন্যদের মধ্যে রাঙ্গামাটি আসনের সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদার, সংরক্ষিত নারী সংসদ সদস্য বাসন্তী চাকমা, পুলিশের আইজপি মো: জাবেদ পাটোয়ারী, পার্বত্য সচিব মেসবাহুল ইসলাম, অতিরিক্ত সচিব সুদত্ত চাকমা, স্বরাষ্ট্র সচিব মোস্তফা কামাল উদ্দিন, র‌্যাব মহাপরিচালক বেনজীর আহম্মেদ, চট্টগ্রাম বিভাগের ২৪ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি মেজর জেনারেল এসএম মতিউর রহমান, বিজিবি মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো: শাফিনুল ইসলাম, বাংলাদেশ আনসার বাহিনীর মহাপরিচালক মেজর জেনারেল কাজী শরীফ কায়কোবাদসহ তিন পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, জেলা প্রশাসক,পুলিশ সুপার, পৌর মেয়র, উপজেলা চেয়ারম্যান, ইউপি চেয়ারম্যার, মেম্বার, হেডম্যান, কার্বারী উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।