চালক অপহরণের চেষ্টা, বান্দরবানে সিএনজি-মাহিন্দ্র চলাচল বন্ধ ঘোষনা

bandarban news pic-22-8-2016একের পর এক চাঁদাবাজী ও অপহরণের সাথে জড়িতদের গ্রেফতারের দাবিতে বান্দরবান সদরে ২৪ ঘণ্টার জন্য সব সড়কে সিএনজি-মাহিন্দ্র গাড়ি চলাচল বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছে বান্দরবান সিএনজি-মাহিন্দ্র সমিতি।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, সোমবার দুপুরে বান্দরবান শহরের বঙ্গবন্ধু মুক্ত মঞ্চের সামনে থেকে বান্দরবান সিএনজি-মাহিন্দ্র সমিতি পক্ষে এ ঘোষণা দেন জেলা যুবলীগের সভাপতি মো: হোসেন, এসময় সমিতির নেতারা উপস্থিত ছিলেন।
তারা জানান, পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংসমিতি সমিতি (জেএসএস) সদস্যদের বাৎসরিক চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে সোমবার দুপুরে জেলা সদরের কুহালং ইউনিয়নের উজি-হেডম্যান পাড়ায় যাওয়ার সময় মো: রাসেল নামের এক সিএনজি চালককে মারধর করে এবং তার সিএনজি আটকে রেখে চাঁদা দাবি করে, সিএনজি চালক সিএনজি রেখেই পালিয়ে আসে।
বান্দরবান জেলার প্রতিটি যান থেকে বাৎসরিক হিসাবে নির্দিষ্ট অর্থ চাঁদা হিসাবে প্রদান করতে হয় জেএসএসসহ পাহাড়ের শসস্ত্র সন্ত্রাসীদেও, এমন অভিযোগ স্থানীয় চালকদের।
সিএনজি মাহেন্দ্র চালকরা আরো জানান, ২৪ ঘণ্টার মধ্যে চাঁদাবাজদের গ্রেফতার করা না হলে হরতাল-অবরোধের মত কর্মসূচি ঘোষণা করবে।
এদিকে এঘটনার পর জেলার বিভিন্ন পরিবহণের অন্য চালকদের মধ্যেও আতংক বিরাজ করছে, সিএনজি ও মাহেন্দ্র বন্ধ থাকায় জেলায় আসা পর্যটকরা পড়েছে বেকায়দায়। ঘটনার পর নিরাপত্তা বাহিনী সদস্যরা সিএনজিটি উদ্ধার ও চাঁদাবাজদের আটকের জন্য তৎপরতা অব্যাহত রেখেছে ।
বান্দরবান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম বলেন, ঘটনার সাথে জড়িতদের আইনের আওতায় আনার জন্য সব ধরণের চেষ্টা চলছে।

আরও পড়ুন
Loading...