ছাত্রলীগের ৬৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ

দেশের ঐতিহ্যবাহী ছাত্র সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৬৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ। বাংলার স্বাধীনতা ও বাঙালির স্বাধিকার অর্জনের লক্ষ্যে মূল দল আওয়ামী লীগের জন্মের এক বছর আগেই প্রতিষ্ঠা পেয়েছিল গৌরব ও ঐতিহ্যের এ ছাত্র সংগঠন।
১৯৪৮ সালের ৪ জানুয়ারি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সংগঠনটি প্রতিষ্ঠা করেন। তার নেতৃত্বেই ওই দিন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফজলুল হক হলে আনুষ্ঠানিকভাবে এর যাত্রা শুরু হয়।
গত ৬৯ বছরে ছাত্রলীগের ইতিহাস হচ্ছে জাতির ভাষার অধিকার প্রতিষ্ঠা, মুক্তির স্বপ্ন বাস্তবায়ন, স্বাধীনতার লাল সূর্য ছিনিয়ে আনা, গণতন্ত্র ও প্রগতির সংগ্রামকে বাস্তবে রূপদানের ইতিহাস। প্রতিষ্ঠার পর থেকেই প্রতিটি গণতান্ত্রিক ও প্রগতিশীল সংগ্রামে ছাত্রলীগ নেতৃত্ব দিয়েছে এবং চরম আত্মত্যাগের মাধ্যমে বিজয় ছিনিয়ে এনেছে।
শনিবার রাত ১২ টা একমিনিটে বান্দরবানে কেক কেটে এবং বঙ্গবন্ধু মুক্তমঞ্চে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে এই কর্মসূচি সূচনা করে বান্দরবান জেলা ছাত্রলীগ ।
বিকাল ৩টায় বান্দরবান আওয়ামীলীগের কার্যালয় থেকে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বের করা হবে মহা শোভাযাত্রা । বিকাল সাড়ে ৩টায় জেলা কার্যালয়ে পৌর ছাত্রলীগের আয়োজনে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে । এ সময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্য শৈ হ্লা । বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও বান্দরবান পৌর মেয়র বেবী ইসলাম, জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ও বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য লক্ষী পদ দাস, জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোজাম্মেল হক বাহাদুর, বান্দরবান জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি কাউছার সোহাগ, সাধারন সম্পাদক জনি সুশীল এবং পৌর ছাত্রলীগের আহবায়ক ইসমাইল হোসেন ।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।