‘জিপিএ-৫ নয় শিক্ষার গুণগত মান বাড়াতে হবে’

শুধুমাত্র জিপিএ-৫ প্রাপ্তিতে উচ্ছাস প্রকাশ না করে শিক্ষার গুণগত মান বাড়ানোর পরামর্শ দিয়ে খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী বলেছেন, শিক্ষকদের প্রস্তুতি নিয়ে ক্লাসে যেতে হবে। পাঠদানের যথাযথ মূল্যায়ন করতে হবে। সার্টিফিকেট সর্বস্ব শিক্ষার পরিবর্তে প্রকৃত শিক্ষা গ্রহণ করতে হবে। শিক্ষা নয় সুশিক্ষাকে অগ্রাধিকার দিতে হবে। তবেই শিক্ষার যথার্থতা নিশ্চিত হবে।
বৃহস্পতিবার দুপুরে খাগড়াছড়ির গোমতি বি কে উচ্চ বিদ্যালয়ের নবনির্মিত ভবনের উদ্বোধন ও জেএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পাওয়া শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
ছাত্র-ছাত্রীদের জীবনমুখী শিক্ষার দিকে উৎসাহিত করার আহ্বান জানিয়ে কংজরী চৌধুরী বলেন, কারিগরি শিক্ষা জীবন বদলের হাতিয়ার হতে পারে। বর্তমান সরকার শিক্ষার মান বাড়াতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। এ সুযোগ কাজে লাগাতে হবে।
বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি মো. মনির হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন মাটিরাঙ্গা পৌরসভার মেয়র মো. শামছুল হক ও গোমতি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. ফারুক হোসেন লিটন, মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান মো. দেলোয়ার হোসেন, মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা সুবাস চাকমা, বেলছড়ি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. নজরুল ইসলাম ও বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক লুৎফুর রহমান প্রমানিক প্রমুখ।
অনুষ্ঠান শেষে খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী কৃতি শিক্ষার্থীদের হাতে ক্রেস্ট তুলে দেন। এর আগে তিনি খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের অর্থায়নে বিদ্যালয়ের নবনির্মিত ভবনের উদ্বোধন করেন।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।