জেনে নিন বান্দরবানের দূর্গাপূজার যত আয়োজন

সনাতন ধর্মালম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব শারদীয়া দূর্গাপূজা
সনাতন ধর্মালম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব শারদীয়া দূর্গাপূজা
আর মাত্র কয়েকদিনের অপেক্ষা, সারাদেশের সনাতন ধর্মানুসারীদের পাশাপাশি আগামী ৭ অক্টোবর শুক্রবার থেকে বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে বান্দরবানের সনাতন ধর্মালম্বীরা উৎযাপন করবে তাদের অন্যতম প্রধান ধর্মীয় উৎসব শারদীয়া দূর্গাপূজা। দূর্গাপূজা উপলক্ষে পাঁচদিনব্যাপী নানা কর্মসূচী আয়োজন করেছে বান্দরবান সার্বজনীন কেন্দ্রীয় দূর্গাপূজা উদযাপন পরিষদ ।
বান্দরবান সার্বজনীন কেন্দ্রীয় দূর্গাপূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক বিপ্লব দাশ রাজেশ্বর জানান, প্রতি বছরের মত আমরা বৃহৎ আকারের এই শারদীয় দূর্গোৎসবের আয়োজন করেছি । দক্ষিন চট্রগ্রামের একটি সেরা পূজা মন্ডপ হিসেবে আমরা প্রতিবছরই নানা ধরনের আয়োজন করে থাকি , এ বছর ও আমরা নতুন নতুন আকর্ষনীয় সৌর্ন্দয্য বর্ধন স্থাপনা সংযোজন করবো এই পূজা মন্ডপ প্রাঙ্গনে। আশাকরি অন্যান্য বছরের তুলনায় এ বছর আরো জাকজমকভাবে এই শারদীয় দূর্গোৎসব উৎসব উদযাপিত হবে।
পাচঁদিনব্যাপী অনুষ্টানে ৭ই অক্টোবর বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টায় শুভ উদ্বোধন, মঙ্গল প্রদীপ প্রজ্জলন ও দেবীর মুখোন্মোচন। এরপরই পরই জ্যোতিশ্বর বেদান্ত মঠ ও মিশনের অধ্যক্ষ শ্রীমৎ স্বামী অভেদানন্দ ব্রক্ষচারীর দেবীস্ততি পাঠ । এসময় উদ্বোধনী অনুষ্টানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে পূজার আনুষ্টানিক উদ্ভোধন করবেন পার্বত্য চট্রগ্রাম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশেসিং এমপি।
উদ্ভোধনী অনুষ্টানে উপস্থিত থাকবেন বান্দরবান রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো:জোবায়ের সালেহীন,এনডিইউ পিএসসি, পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্য শৈ হ্লা, জেলা প্রশাসক দিলীপ কুমার বণিক,পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায়,পার্বত্য চট্রগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য কাজল কান্তি দাশ, পৌর মেয়র মোহাম্মদ ইসলাম বেবী, পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য লক্ষীপদ দাস, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল কুদ্দুছ, বান্দরবান সার্বজনীন কেন্দ্রীয় দূর্গা মন্দিরের সভাপতি নিখিল কান্তি দাশসহ প্রমুখ ।
এরপর ৮ অক্টোবর শনিবার মহাসপ্তমী,সকাল ৯টার পর দেবীর নব পত্রিকা প্রবেশ , স্থাপন সপ্তম্যাদি ও পূজা প্রশস্তা শুরু হবে । এর পরে দেবীর ঘোটকে আগমন হবে। ৯ অক্টোবর রবিবার মহাষ্টমী ,সকাল ৯.৫৭ এর মধ্যে শ্রী শ্রী দেবীর মহাষ্টমী বিহিত পূজা প্রশস্তা , সন্ধ্যা ৫.৩৯টার পরে সন্ধিপূজা সমাপন । ১০ অক্টোবর সোমবার মহানবমী, সকাল ৭.৫৭টার মধ্যে শ্রী শ্রী দেবীর মহানবমী পূজা প্রশস্তা, আর দেবীর ঘোটকে গমন।
১১ অক্টোবর মঙ্গলবার সকাল ৯.০০টা গতে শ্রী শ্রী দেবীর দশমী বিহিত পূজা সমাপন। এর পরপরই সকাল ১০টায় পুস্পাঞ্জলি অনুষ্টিত হবে। সর্বশেষে সকাল ১১টায় বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা সহকারে শহরের প্রধান প্রধান সড়কে প্রদক্ষিণ শেষে সাঙ্গু নদীতে প্রতিমা বির্সজ্জনের মধ্য দিয়ে সনাতন ধর্মালম্বীদের পাঁচ দিনব্যাপী শারদীয়া দুর্গোৎসবের সমাপ্তি ঘটবে।
বান্দরবান সার্বজনীন কেন্দ্রীয় দূর্গাপূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি অমল কান্তি দাশ জানান, পাঁচ দিনব্যাপী নানা আয়োজনে বান্দরবানের রাজার মাঠে বিশাল প্যান্ডেল তৈরি ও আধুনিক ডিজিটাল গেইট তৈরি করে জাকজমকভাবে এবারের শারদীয় দূর্গোৎসব উদযাপন হবে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।