জেসিকা বড়ুয়া’র পড়ালেখার দায়িত্ব নিলেন বীর বাহাদুর

প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর জেসিকা বড়ুয়াকে পাশে বসিয়ে পরম মমতায় মাথায় হাত বুলিয়ে দেন
বান্দরবানের রুমা উপজেলার সড়ক পথের দলিয়ান পাড়া এলাকায় গত রোববার সড়কের উপর পাহাড় ধসে মাটি চাপা পড়ে নিহত মুন্নি বড়ুয়া’র একমাত্র সন্তান জেসিকা বড়ুয়ার পড়ালেখার দায়িত্ব নিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি।
আজ শুক্রবার দুপুরে জেলা শহরের বান্দরবান সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে মুন্নি বড়ুয়ার সাপ্তাহিক ক্রিয়া, সংঘ দান ও অষ্ট পরিষ্কার দান অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে বীর বাহাদুর শোকাহত পরিবারটিকে সমবেদনা জানান। এসময় প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর জেসিকা বড়ুয়াকে পাশে বসিয়ে পরম মমতায় মাথায় হাত বুলিয়ে দেন এবং ভালো করে পড়ালেখা করে মায়ের স্বপ্ন পূরন করতে বলেন। এসময় মুন্নি বড়ুয়ার মা নীলিমা বড়ুয়া কান্নায় ভেঙ্গে পড়লে প্রতিমন্ত্রী উনাকে সান্তনা দেন।
মুন্নি বড়ুয়ার মা নীলিমা বড়ুয়া কান্নায় ভেঙ্গে পড়লে বীর বাহাদুর উনাকে সান্তনা দেন
মুন্নি বড়ুয়ার মা নীলিমা বড়ুয়া ও পিতা সুনিল বড়ুয়া, ভাই রাহুল বড়ুয়া ছোটন,বোন ববি বড়ুয়া,রুবি বড়ুয়া,প্রিয়াংকা বড়ুয়া, বোনের স্বামী করুণ বড়ুয়া, বিভূতি বড়ুয়া ও সুজন দাশ উপস্থিত ছিলেন। তাছাড়া এসময় উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য লক্ষীপদ দাশ,ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হারুন অর রশিদ,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আলী হোসেন, জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অজিত দাশ, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি অমল কান্তি দাশ, পৌর মেয়রের সহধর্মীনি কামরুন নেছা বেবী, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি তৌহিদুর রহমান রাশেদ,সাবেক ছাত্রলীগ নেতা রাজেশ দাশ,পংকজ দাশ ও বিটু দাশসহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।
জেসিকা বড়ুয়ার পিতা অমর বড়ুয়া ভুলন পাহাড়বার্তা’কে বলেন, মন্ত্রী মহোদয় জেসিকার পড়ালেখা করানোর খরচ বহন করবে বলে বলেছেন এবং যেকোন সমস্যায় উনাকে জানানোর জন্য বলেছেন।
বান্দরবান সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে মুন্নি বড়ুয়ার সাপ্তাহিক ক্রিয়া, সংঘ দান ও অষ্ট পরিষ্কার দান অনুষ্ঠান
মুন্নি বড়ুয়ার ভাই মোহনা টেলিভিশনের বান্দরবান প্রতিনিধি রাহুল বড়ুয়া ছোটন পাহাড়বার্তা’কে বলেন, বান্দরবানের ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজের ৪র্থ শ্রেণীতে অধ্যায়নরত জেসিকাকে গত রোববার সকালে বাসায় ঘুমন্ত অবস্থায় রেখে রুমার নিজ কর্মস্থলে যোগ দিতে যাওয়ার সময় এই দূর্ঘটনার শিকার হন রুমা উপজেলার পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের সহকারী মুন্নি বড়ুয়া।
পুলিশ সূত্রে জানা গেছে,গত সোমবার সকালে চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার সাঙ্গুনদীতে ভাসমান অবস্থায় থাকা মুন্নির লাশ উদ্ধার করে স্থানীয়রা। পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করে। মুন্নির লাশ বান্দরবানের সাঙ্গু নদী দিয়ে ভেসে চট্টগ্রামের বাঁশখালীর সাঙ্গু নদীতে চলে যায়। গত বুধবার চট্টগ্রাম থেকে লাশ বান্দরবানে নিয়ে এসে কেন্দ্রিয় বৌদ্ধ শ্বশানে সমাধি দেওয়া হয়।
প্রসঙ্গত,বান্দরবানের রুমা উপজেলার সড়ক পথের দলিয়ান পাড়া এলাকায় গত রোববার পাহাড় ধসের ঘটনায় এখনও নিখোঁজ রয়েছে সিংমেচিং ও রুমা ডাকঘরের পোষ্ট মাষ্টার রবিউল।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।