ত্রাণের বদলে মার দিলেন নাইক্ষ্যংছড়ির চেয়ারম্যান নুরুল আবছার !

প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ত্রাণ দেওয়ার কথা বলে ঘর থেকে ডেকে এনে স্থানীয় এক বাসিন্দাকে বেদড়ক মারধর করার অভিযোগ উঠেছে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি সদর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নুরুল আবছারের বিরুদ্ধে। এই ঘটনায় সদর চেয়ারম্যান ও মহিলা ইউপি মেম্বারের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন ওই বাসিন্দা।

জানা গেছে, জেলার নাইক্ষ্যংছড়ি ১নং সদর ইউনিয়নের ১নম্বর ওয়ার্ডের রসুলপুর এলাকার বাসিন্দা আবদুর রাজ্জাকের ছেলে মো: সোহেল (৩৩)কে নিজ বাড়ি থেকে চৌকিদারের মাধ্যমে ডেকে আনেন সদর ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল আবছার। সোমবার বিকাল ৩টার দিকে ইউনিয়ন পরিষদে ঢোকার সাথে সাথে চেয়ারম্যান তার হাতে থাকা ডিসের তার দ্বারা সোহেলের উপর এলোপাতাড়ি আঘাত করতে থাকে।

এতে সোহেলের পিট, পা, বুকসহ শরীরের বিভিন্ন অংশে মারাত্মক জখম হয়। পরে খবর পেয়ে সোহেলের মামা মামুনুর রশিদ পরিষদ থেকে উদ্ধার করে নিয়ে যায় সোহেলকে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে নাইক্ষ্যংছড়ি সদর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নুরুল আবছার মারপিটের কথা অস্বীকার করেন। তবে তার বিরুদ্ধে থানায় একটি অভিযোগ হয়েছে বলে শুনেছেন, প্রতিপক্ষ তাকে ঘায়েল করার জন্য মিথ্যা প্রপাগন্ডা ছড়াচ্ছে বলে দাবী করেন তিনি।

মারধরের শিকার মো: সোহেল। ছবি-পাহাড়বার্তা

এদিকে ইউনিয়ন পরিষদের লাগোয়া সড়কে চলাচলকারী নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন পথচারি জানান, সোমবার ৩টার দিকে পরিষদ থেকে চিৎকার আর মারপিটের শব্দ শুনতে পাই। তবে কাকে, কে মারছে সেই বিষয়ে জানা নেই!

এদিকে এ বিষয়ে নাইক্ষ্যংছড়ি থানা অফিসার ইনচার্জ আলমগীর হোসেন বলেন, সদর চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে এক ব্যক্তি থানায় অভিযোগ করেছে, বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, চলতি বছরের এপ্রিল মাসে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি সদর ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল আবছার নাইক্ষ্যংছড়ি মহিউচ্ছুন্না দাখিল মাদ্রাসায় তালা ঝুলিয়ে দেন। মাদ্রাসার এডহক কমিটি থেকে এই চেয়ারম্যানকে বাদ দেওয়ার কারনে এমন কান্ড ঘটিয়ে উপজেলাটিতে আলোচনায় আসে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।