থানচিতে এসএসসিতে কমছে পাশের হার

NewsDetails_01

এসএসসি বা সমমান পরীক্ষায় এবার বান্দরবানের থানচি উপজেলায় পাসের হার কমে এসেছে, ফলে শিক্ষার্থী ও অভিবাবকদের মাঝে দুশ্চিন্তা বাড়ছে।

চলতি বছরে পাসের হার দাঁড়িয়েছে ৪৬ দশমিক ৬৫ শতাংশ। গত বছরে জেলায় এসএসসি পরীক্ষায় পাশের হার ছিল ৫৫ দশমিক ২৬ শতাংশ, এর আগের বছর ৭৫ শতাংশ, ২০২১ সালে শতভাগ পাশ।
আজ রবিবার (১২ মে) দুপুরে থানচি সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নূর মোহাম্মদ এ তথ্য জানান।

NewsDetails_03

প্রধান শিক্ষককের তথ্য মতে, এবার বান্দরবানের থানচি উপজেলায় মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছিল ৩ শত ৪৩ জন শিক্ষার্থী। তার মধ্যে ৭ জন পরীক্ষা অংশ গ্রহন করেনি। থানচি সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের ২ শিক্ষার্থী এস এস সি পরীক্ষার আগেই বিয়ে হয়ে যাওয়ার কারনে অংশ নেননি পরীক্ষায়। তারমধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছেন ১৬০ জন শিক্ষার্থী। জিপিএ-৫ নেই। সাধারণ হিসেবে পাশ করেছে।

জানা যায়, স্কুলভিত্তিক এসএসসি পরিক্ষায় অংশগ্রহণ করেছে ৩৩৬ জন শিক্ষার্থীর। উত্তীর্ণ হয়েছে ১৬০ জন। উপজেলার ৪ টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী অংশ নিলে ও এবার থানচি সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০৫ জন মধ্যে ৫৩ জন পাশ করেছে। পাশের হার ৫১ দশমিক ৪৬ শতাংশ। বলিপাড়া বাজার উচ্চ বিদ্যালয়ের ১৪০ জন মধ্যে ৬৩ জন পাশ করেছে। পাশের হার ৪৫ দশমিক ০০ শতাংশ। বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের মোট ৮৬ জন মধ্যে ৩৭ জন পাশ করেছি। পাশের হার ৪৩ দশমিক ০২ শতাংশ। রেমাক্রী বাজার উচ্চ বিদ্যালয়ের মোট ১২ জন অংশ নিয়েছিল তৎমধ্যে ৭ জন পাশ করেছে। পাশের হার ৫৮ দশমিক ০২ শতাংশ।

এ বিষয়ে থানচি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নূর মোহাম্মদ বলেন, গতবারের বন্যার কারণের শিক্ষার্থীদের পড়াশোনায় কিছুটা ঘাটতি ছিল। সে সময় বন্যাতে সব বই নষ্ট হয়ে গিয়েছিল। তাই পড়ালেখা তেমন করতে পারেনি শিক্ষার্থীরা। অপর দিকে গত বছরের অকৃতকার্য শিক্ষার্থীদের স্কুলের উপস্থিত থেকে ক্লাস করার জন্য বলা হলে ও কোন শিক্ষার্থী স্কুলে আসেন নি। না এসে পরীক্ষা অংশ নেয়ার এ বিপর্যয় হয়েছে বলে তিনি ধারনা করেন। ভবিষ্যতের চেয়ে পাশের হার বাড়বে বলে আশাব্যক্ত করেন তিনি।

আরও পড়ুন