দর্শকেরা দেখছেন ‘আয়নাবাজি’

downloadসিনেমা হলের সামনে দর্শকের এমন ভিড়ের দৃশ্য বহুদিন দেখা যায়নি। কেউ টিকিট না পেয়ে হতাশ, কেউবা দুই দিন আগে থেকেই ছবি দেখার অগ্রিম টিকিট কিনে রাখছেন। ক্ষেত্রবিশেষে কালোবাজারেও বিক্রি হচ্ছে সিনেমার টিকিট। এসবই ঘটছে সদ্য মুক্তি পাওয়া আয়নাবাজি সিনেমাকে কেন্দ্র করে। অমিতাভ রেজা পরিচালিত আয়নাবাজি সিনেমাটি মুক্তি পেয়েছে গত ৩০ সেপ্টেম্বর। মুক্তির পর থেকেই এই সিনেমা নিয়ে প্রেক্ষাগৃহগুলোতে সব বয়সী দর্শকের ভিড় ছিল লক্ষণীয়। কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা যেমন এই ছবিটির ব্যাপারে আগ্রহ দেখিয়েছেন, তেমনি দীর্ঘদিন ধরে যাঁরা প্রেক্ষাগৃহে বসে বাংলাদেশের সিনেমা দেখা বন্ধ করেছিলেন, তাঁরাও আয়নাবাজি দেখতে ছুটেছেন বিভিন্ন প্রেক্ষাগৃহে। আয়নাবাজি সারা দেশে ২৩টি প্রেক্ষাগৃহে চলছে। শুরুতে এটি মুক্তি পায় মাত্র ১৯টি প্রেক্ষাগৃহে। জানা গেছে, দর্শকের চাহিদার কারণে ১৪ অক্টোবর থেকে আয়নাবাজি সিনেমার প্রেক্ষাগৃহ সংখ্যাটা বেড়ে দাঁড়াবে ৪৫-এ। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে যমুনা ব্লকবাস্টার সিনেমাসে ছবি দেখতে গিয়ে উচ্ছ্বসিত ফারিয়া চৈতি নামের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী। তিনি বলেন, ‘আমি নিয়মিত সিনেমা দেখি। এই প্রেক্ষাগৃহে অন্য কোনো সিনেমার জন্য এত ভিড় দেখিনি।’আয়নাবাজির দর্শক সামলাতে পুলিশ মোতায়েন করা হয় ঢাকার নিউমার্কেট এলাকার বলাকা সিনেমা হলে। গত শুক্রবার থেকে দর্শকদের উপচে পড়া ভিড় সামলাতে মোতায়েন করা হয় পুলিশ। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে নিউমার্কেট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতিকুর রহমান বলেন, ‘প্রেক্ষাগৃহের যে পরিমাণ আসন, তার প্রায় তিন-চার গুণ দর্শক ভিড় করছে সেখানে। স্বাভাবিকভাবেই একটা হট্টগোলের সম্ভাবনা থাকে। এ কারণে বেশ কয়েকজন পুলিশ সদস্য মোতায়েন করতে হয়েছে।’

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।