দীঘিনালায় ছাউনি বিহীন ক্লাশে চলছে পাঠদান

খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় ছাউনি বিহীন ক্লাশে চলছে শ্রেণি কার্যক্রম। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি উপজেলার কবাখালী ইউনিয়নের কবাখালী আল আমিন বারীয়া ইবতেদায়ী মাদরাসা। জড়াজীর্ণ ছাউনি পরিবর্তন করার জন্যে ছাউনি খোলা হলেও আর্থিক সংকটের কারণে আর ছাউনি দেয়া সম্ভব হয়নি বলে জানিয়েছেন মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটি।

১০ জানুয়ারি (সোমবার) সকালে কবাখালী আল আমিন বারীয়া ইবতেদায়ী মাদরাসায় সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, মাদ্রাসার শিক্ষক মোঃ হুমায়ুন কবির মাদ্রাসার ছাউনি বিহীন ক্লাশে ৫ম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের পাঠদান করছেন। এতে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের হচ্ছে চরম অসুবিধা। সেইসাথে শিক্ষার্থীদের পাঠদান ব্যাহত হচ্ছে।

এবিষয়ে কবাখালী আল আমিন বারীয়া ইবতেদায়ী মাদ্রাসার সুপার মাওলানা মীর আলী হায়দার জানান, মাদ্রাসায় ৬জন শিক্ষকসহ ১শত ৪৬ জন শিক্ষার্থী অধ্যয়নরত আছে। মাদ্রাসায় নিয়মিত বৃষ্টির পানি পড়তো, তাই বর্ষার আগেই সংস্কার করার লক্ষ্যে গত বছরের ২৬ ডিসেম্বর ২০২১ খ্রীস্টাব্দে জড়াজীর্ণ ছাউনি পরিবর্তন করার জন্যে খোলা হয়েছিল। কিন্তু আর্থিক সংকটের কারণে তা আর লাগানো সম্ভব হয়নি। এখন ছাউনি বিহীন ক্লাশেই, এক কথায় খোলা আকাশের নিচে ক্লাশ নিচ্ছি।

মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক মোঃ আমির হোসেন দুলাল জানান, বর্ষায় শ্রেণি কক্ষে বৃষ্টির পানি ঢুকে। তাই জড়াজীর্ণ ছাউনি ফেলে নতুন ছাউনি লাগানোর উদ্দেশে পুরাতন ছাউনি ফেলে দিয়েছি। আর্থিক সংকটের কারণে এখন নতুন টিনের ছাউনি লাগাতে পারছি না। ছাউনি লাগাতে ১৭ বান টিনের প্রয়োজন তিনি আরো জানান, সেচ্ছায় কেহ টিন দান করলে সাদরে গ্রহণ করা হবে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।